এটি শ’রীরকে পরিশোধিত করতে সাহায্য করে। সারা পৃথিবীতেই এই পানির বেশ কদর রয়েছে। এর স্বাস্থ্য উপকারিতাও অনেক বেশি।

টানা সাতদিন ডাবের পানি খেলে শ’রীরের অনেক উপকার হয়। তবে যেকোনো খাবার নিয়মিত খাওয়ার আগে আপনার শ’রীরের অবস্থা বুঝে এবং চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে তা গ্রহণ করুন।

আসুন জেনে নিন ডাবের পানির উপকারিতা :

১। ডাবের পানি প্রাকৃতিক ভাবেই স্যালাইন ওয়াটারের কাজ করে। সমুদ্র উপকূলে বা রোদে যাঁরা কাজ করেন তাঁরা দিনে দু’-তিনটি ডাবও খেতে পারেন।

২। ডাবের পানিতে উপকারী উৎসেচক থাকায় তা হজম অত্যন্ত সাহায্য করে। অনেকেরই ভারী কিছু খাওয়ার পর ডাবের পানি উপকারি।

৩। ডাবের পানি শ’রীরে পানির ভারসাম্য রাখে। তাই ক্ষ’তিকর খাবারের বদলে ডায়েটে রাখু’ন ডাবের পানি।

৪। ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, সোডিয়াম রয়েছে। তাই শ’রীরে এই সব খনিজের অভাব রুখে দিতে পারে ডাবের পানি।

৫। ডাবের পানির মধ্যে রয়েছে মূ’ত্রবর্ধক উপাদান। এটি ইউরিনারি ট্র্যাক্ট পরিষ্কারে সাহায্য করে।

৬। শ’রীরে শ’ক্তি জোগাতে সাহায্য করে। থাইরয়েড হরমোনের উৎপাদন বাড়ায়।

৭। ব্যায়াম করার পর এক গ্লাস ডাব পানি শ’রীরের শ’ক্তি পুনরুদ্ধারে সাহায্য করে।

৮। প্রতিদিন এক কাপ ডাবের পানি পান করলে ত্বককে আর্দ্র থাকে। এটি ব্রণের সমস্যা কমায়।

৯। ডাবের পানির মধ্যে রয়েছে আঁশ। এটি হজমে বেশ সাহায্য করে। নিয়মিত নারকেলের পানি পান করলে গ্যাসট্রিকের সমস্যা কমায়।

১০। নারকেলের পানি শ’রীরের রো’গ প্রতিরোধক্ষ’মতা বাড়াতে সাহায্য করে। এটি ইউরিনারি ট্র্যাক্টে সং’ক্র’মণকারী ব্যাকটেরিয়াকে প্রতিরোধ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here