চালু হচ্ছে বিমানের ঢাকা-মাস্কট ফ্লাইট

ওমান সবকার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করায় ঢাকা-মাস্কট রুটে নিয়মিত ফ্লাইট চলাচল শুরু করতে যাচ্ছে বিমান। আগামী মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) রাত থেকে এ রুটে নিয়মিত ফ্লাইট চলাচল করবে। রোববার (২৭ ডিসেম্বর) বিমানের পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ মহামারির দ্বিতীয় দফায় গত ২১ ডিসেম্বর ওমান সরকার আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার ছয়দিন পর রোববার (২৭ ডিসেম্বর) ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয় ওমান। নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেওয়ার পর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২৯ ডিসেম্বর রাত থেকে মাস্কাটে ফ্লাইট পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছে। বিমান জানায়, বাতিল ফ্লাইটগুলোর যাত্রীদের নিকটস্থ বিমান সেলস অফিসে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

ফ্লাইটে আসন খালি থাকা সাপেক্ষে তাদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে আসন বরাদ্দ করা হবে। তবে সৌদি আরব ও দুবাই তাদের নিষেধাজ্ঞা না তোলা পর্যন্ত ওই দুই দেশে বাংলাদেশ বিমানের সব ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। করোনাকালে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সপ্তাহে ঢাকা থেকে মাস্কাটে দুটি এবং চট্টগ্রাম থেকে দুটি ফ্লাইট পরিচালনা করত।

পড়ুন আরও খবর – আবারও তীব্র দূষণের কবলে দিল্লি শহর। আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, শহরের বায়ুমান ক্রমশ খারাপ থেকে বেশি খারাপ হচ্ছে। এদিকে স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মাত্রাতিরিক্ত বায়ুদূষণ এবং ধূলার কারণে শ্বাসকষ্টসহ নানা সমস্যায় ভুগছেন তারা। সূর্যের দেখা নেই, ধোঁয়াশায়াছন্ন দিল্লির আকাশ। মাত্রাতিরিক্ত দূষণ আর কুয়াশার কারণে শহরটিতে রাত আর দিনের পার্থক্য করা কঠিন। দিনের বেলায়ও লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে যানবাহন।

আবহাওয়ার এমন পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন দিল্লির বাসিন্দারা। দূষণের কারণে অনেকেই রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন বলে জানান তারা।স্থানীয় একজন বলেন, ‘আবহাওয়া এতটাই খারপ যে, হাঁটাও কঠিন। ঘন কুয়াশার সাথে তো বায়ু দূষণও আছে। শ্বাস নিতেও আমার কষ্ট হচ্ছে।’ স্থানীয় এক দোকানদার বলেন, ‘সমস্যা আগের চেয়ে আরও বেড়েছে।

ঠান্ডা এবং কুয়াশার কারণেই এমনটা হচ্ছে। আমি সাইকেলও চালাতে পারছি না। অনেকেই বাইরে বের হচ্ছেন না, তাই আমার দোকানেও ক্রেতা কম।’ দিল্লির আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শীত বাড়ার সাথে সাথে আবহাওয়ার আরো অবনতি হবে। ভারতের দিল্লি ছাড়াও পাঞ্জাবসহ বেশ কয়েকটি এলাকায়ও বাড়ছে বায়ুদূষণ। যদিও দেশটির সরকারের দাবি, বায়ুমান বাড়াতে এবং দূষণ কমাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*