বড় বোনের গর্ভে জন্ম নিলো ছোট বোন!

নিজের গর্ভে বোনকে জন্ম দিলেন ২৫ বছরের এক তরুণী! অবাক করা হলেও ঘটনাটি সত্য। কেট নামের এক ব্রিটিশ তরুণীর গর্ভে জন্মেছে তারই ছোট বোন। শুরুর দিকে কেট নিজের গর্ভে জন্ম দেয়ায় বোনকে নিজের মেয়ে বলবেন নাকি বোন বলবেন তা নিয়ে দ্বিধাগস্ত ছিলেন। পরে অবশ্য কন্যাশিশুটিকে তিনি বোন বলেই সম্বোধন করেছেন। কেট নামের এই নারীর বসবাস ইংল্যান্ডের ওয়েলসে। সেখানে তার মা ফায়ের

বিয়ে হয়। সেই সংসারে হান্নাহ (২৭) ও হ্যারিসহ (২২) কেটরা তিন ভাইবোন। এক পর্যায়ে তাদের বাবা সংসারের খোঁজ-খবর না নেয়ায় মা ফায়ের ওপর প্রচণ্ড চাপ পড়ে। তখন তাদের মায়ের বয়স ছিল ৩৬ বছর। পরিবার চালানো ও সন্তানদের বড় করা, সব মিলিয়ে তাদের মাথার উপর একজনের সাপোর্ট দরকার ছিলো।

২০০৬ সালের দিকে কেটের মা ফায়ের সঙ্গে পরিচয় হয় ৩৩ বছরের অ্যানড্রু’র। তার প্রেমে পড়ে যান কেটের মা। এক মাসের মধ্যে তাদের বাগদানও সম্পন্ন হয়। এক বছর পরে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন বলেও কেট উল্লেখ করেন।কেট আরও জানায়, তাদের সৎ-বাবা অ্যানড্রু কাজ করতেন ফোর্সেসে। বিয়ের পর তিনি একটি সন্তানের পিতা হওয়ার জন্য অস্থির হয়ে পড়লেন। কেটের মা-ও একটি ছোট্ট মুখ আশা করছিলেন।

তবে ফায়ের কয়েকবার গর্ভপাত ঘটে। হতাশা নেমে আসে তাদের পরিবারে। ওদিকে কেট যখন ২০ এর কোটায় তখন অপ্রত্যাশিতভাবে তিনিও অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লেন। জন্ম দিলেন একটি সন্তান। এদিকে তখনও তার মা ফায়ের সন্তান জন্ম দেওয়ার চেষ্টা অধরাই থেকে যায়।

এতে মা ও বাবার হতাশা দেখে কেট তাদের গর্ভভাড়ার পরামর্শ দেয়। বলেন, তোমরা তোমাদের ডিম্বাণু ফ্রোজেন করতে পারো এবং আরেকবার চেষ্টা করতে পারো। পরে কেট নিজেই মায়ের কাছে প্রস্তাব দেন, তিনিই গর্ভভাড়ার মতো নিজের পেটে তার মা ও সৎ-বাবা অ্যানড্রুর ডিম্বাণু থেকে সৃষ্ট ভ্রুণ ধারণ করতে চান। তার মায়ের জন্য জন্ম দিতে চান একটি সন্তান।

পরে বারবার চেষ্টার পর ফেব্রুয়ারিতে দেখা গেল কেট অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন। তার পেটে বড় হচ্ছে তার মা ও সৎপিতার ডিম্বাণু থেকে তারই বোনের ভ্রুণ। তারপর জন্ম হলো একটি কন্যা সন্তান। তার নাম রাখা হলো উইলো। এই ঘটনাটি এখন ইংল্যান্ডে রীতিমতো হৈ-চৈ ফেলে দিয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*