মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত বাঙালি প্রবাসীদের জন্য নতুন সুবিধা চালু

এশিয়ার অন্যতম ধনী দেশ মালয়েশিয়ার উন্নয়নের পেছনে বিদেশী কর্মীদের অবদান অনু’স্বীকার্য। কিন্তু এই বিদেশী কর্মীরা ন্যা’য্য অধিকার থেকে সব সময় ব’ঞ্চিত হয়ে আসছিলো। তবে বর্তমানে মালয়েশিয়া সরকার বিদেশী কর্মীদের ন্যায্য অধিকার আদায়ের জন্য নানামুখী পদক্ষে’প গ্রহণ করেছেন। তার ধারবাহিকতায় একটি নতুন ‘গো’পন’ ফোন অ্যাপ চালু করেছেন দেশটির সরকার।

জানুয়ারি থেকে এই বহু-ভাষিক অ্যাপটি প্রবর্তনের সাথে সাথে মানবসম্পদ মন্ত্রী বিদেশী কর্মীদের অধিকার ল’ঙ্ঘ’নকারী অসাধু নিয়োগকারীদের, বিশেষত কো’ভিড -১৯ প’দ্ধতি ল’ঙ্ঘ’নকা’রীদের নজরে রাখতে সক্ষ’ম করবে।

দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান বলেছিলেন, এই অ্যাপটি অ’নাকা’ঙ্খিত ক’রো’না ভা’ইরা’স থেকে জনগণকে সুর’ক্ষা দিতে কিছু বিধি-নি’ষেধ জা’রি করেছিলেন। সেই বিধি-নিষেধ অ’মান্যকারী এক নিয়োগকর্তার বি’রু’দ্ধে তদ’ন্ত শুরু আগেই তথ্য ফাঁ’স হওয়ায় অ’ভিযু’ক্ত নিয়োগকর্তা দ্রুত তার কর্মীদের অন্যত্র সরিয়ে নেয়।

তিনি বলেন, কার্যনির্বাহী দল কারখানায় পৌঁছানোর আগেই শ্রমিকদের অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়ায় এ ক্ষেত্রে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হয়নি। পোর্ট ক্লাংয়ের একটি গ্লোভস্ কারখানায় শ্রম বিভাগ এবং ক্লাং স্বাস্থ্য বিভাগের যৌথ অ’ভি’যান জড়িত ছিল এটি।

মন্ত্রী বলেন, যে সমস্ত বিদেশী কর্মীদের এই অ্যাপটিতে অ্যা’ক্সেস রয়েছে তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এটি নেপাল, বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশ থেকে আগত অভিবাসীদের দ্বারা কথিত ভাষায় অনুবাদ করা হবে এবং জানুয়ারি থেকে আমরা আরও কঠিন হতে যাচ্ছি। বর্তমানে বিদেশী কর্মীদের সরকারের সাথে সরাসরি কোন যোগসূত্র নেই এবং তাদের সাথে খারাপ আচরণ করা হচ্ছে কিনা তা তারা আমাদের জানাতে পারে না।

এই উদ্যোগের সাথে তিনি বলেছিলেন, বিদেশি কর্মীরা তাদের পরিচয় সুর’ক্ষিত করে সরাসরি সরকারের কাছে প্রবেশ করতে পারবেন। এটি শ্রমিকদের সরকারের সাথে দ্বি-মুখী যোগাযোগ স্থাপন করা আরও সহজ এবং নিরাপদ হবে বলে মনে করেন তিনি। তপাহ এমপি এমআইসির মালিকানাধীন মাজু ইনস্টিটিউট অফ এডুকেশনাল ডেভেলপমেন্ট ফান্ড থেকে ৩০১ জন শিক্ষার্থীকে চেক উপস্থাপন শেষে সাংবাদিকদের সাথে এসব কথা বলেন তিনি।

এছাড়া যে নিয়োগকারীদের টা’র্গেট করা সরকারের উদ্দেশ্য নয় তবে তারা চেয়েছিলেন শ্রমিকদের তাদের অধিকার সম্পর্কে অবহিত এবং অধিকার নিশ্চিতে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। যাতে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সূচকে মালয়েশিয়ার অবস্থান আরও উন্নত করতে পারে বলেও জানান তিনি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*