স্ত্রী-সন্তানের কাছে ফিরতে চান অসুস্থ মালয়েশিয়া প্রবাসী ফারুক

চলাচলে অক্ষম ও অ’সুস্থ মালয়েশিয়া প্রবাসী মো: ফারুক মিয়া (৩৯) ফিরতে চান তার স্ত্রী’ সন্তানদের কাছে। অ’সুস্থ ফারুক মিয়া ঢাকার কেরানীগঞ্জ থা’নার আকছাইন গ্রামের মৃ’ত নুর মোহাম্ম’দের ছে’লে।

গত ছয় মাস ধরে তার ডান পা অবশ হয়ে যাওয়ায় কাজ-কর্ম ও চলাফেরা করতে পারছেন না তিনি। চিকিৎসার কাজে খরচ হয়ে গেছে আয় করা সব টাকা-পয়সা। এ মুহূর্তে ফারুকের চিকিৎসার ব্যয় ভা’র বহন করতে পারছেন না দেশে থাকা দরিদ্র ও অসহায়।

কিছু দিন আগে ধার-দেনা করে তার পরিবার ৭০ হাজার টাকা পাঠালেও টাকা ইন্ডিয়ান তামিল ছিনতাইকারীরা পাসপোর্টসহ সব কেড়ে নিয়েছেন। তাকে দেশে ফেরত পাঠানোর যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে প্রয়োজন তিন হাজার মালয়েশিয়ান রিংগিত।

রোববার কুয়ালালামপুর কোতারায়া বাংলাদেশী মা’র্কে’টে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, মো: ফারুক মিয়া দীর্ঘ দিন অ’সুস্থ হয়ে কোতারায়া বাংলাদেশী মা’র্কে’টের বারান্দায় থাকতেন। তার অসহায়ত্ব দেখে বাংলাদেশী প্রবাসী মো: শাহিন আলম সাময়িকভাবে তাকে জায়গা দেন।

মো: ফারুক নয়া দিগন্তকে জানিয়েছেন, তিনি ২০০৭ সালের কলিং ভিসায় মালয়েশিয়ায় আসেন। তিনি কনস্ট্রাকশন সেক্টরে কাজ করতেন। দেশে তার স্ত্রী’, এক ছে’লে ও এক মে’য়ে সন্তান রয়েছে।

ফারুক মিয়া এ প্রতিবেদকের পরিচয় জানার পর কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমি আপনাদের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার ও প্রবাসীদের কাছে অনুরোধ করছি আমাকে যত দ্রুত সম্ভব দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন। আমা’র ডান পা ধীরে ধীরে অবশ হয়ে চিকন হয়ে যাচ্ছে। টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছি না। এখানে থাকলে আমি মা’রা যাব।’ সূত্র: নয়া দিগন্ত

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*