আমার মেয়ের মায়ের নামে একটি শব্দও খারাপ বলব না : তাহসান

১১ বছরের দাম্পত্য ভাঙার পর সংগীতশিল্পী তাহসান নতুন করে কোনো সম্পর্কে না জড়ালেও রাফিয়াত র’শিদ মিথিলা কলকাতার পরিচালক সৃজিত মুখার্জিকে জীবনস’ঙ্গী করেছেন। গত বছরের ডিসেম্বরে মিথিলা দ্বিতীয় বিয়ের প্রথম বার্ষিকী উদযাপন করেছেন। একমাত্র মেয়ে আইরাকে নিয়ে সৃজিতের স’ঙ্গে সুখেই আছেন এই অ’ভিনেত্রী।

সাবেক স্ত্রীর স’ঙ্গে বর্তমানে সম্পর্ক কেমন এ বি’ষয়েও মুখ খুলেছেন বাংলাদেশি এই জনপ্রিয় তারকা। সম্পর্কের ধরন জানতে চাইলে তাহসান বলেন, এটা আসলে খুব কঠিন একটা প্রশ্ন। আমা’দের প্রত্যেকেরই তো কিছু দোষ-গু’ণ আছে। আমা’দের একটা সম্পর্ক ফেল করেছে মানে এই নয় যে বন্ধুত্ব থাকবে না। আমা’দের মেয়েকে আমর’া দু’জনেই খুব ভালোবাসি। আমা’র মেয়ের মায়ের নামে তাই একটি শব্দও খারাপ বলব না।আমি মনে করি, আমর’া দু’জন আলাদা থেকেও আইরাকে সুন্দরভাবে বড় হওয়ার সুযোগ করে দিতে পারি।

এছাড়াও বিচ্ছেদের তিন বছর পেরিয়ে গেছে। তখন আমা’র জীবনের কঠিন সময় ছিল। কিন্তু আমর’া কেউই বাইরের মানুষের কথায় আমা’দের বন্ধুত্ব ন’ষ্ট করিনি। তাই বোধ হয় আমা’দের সম্পর্কটা এতটা সহজ।কথা হয় মিথিলার স’ঙ্গে? এই প্রশ্নের জবাবে তাহসান বলেন, আমা’দের প্রতিনিয়ত যোগাযোগ আছে। ওরা তো এখন সিকিমে। আইরা বরফ দেখে ওখান থেকেই আমাকে ভিডিও কল করেছিল।

ভিডিও কল তো হলো, এবার মেয়েকে দেখতে নিজে যাব’েন তো? তাহসান বললেন, হ্যাঁ। এই মহা’মা’রির জন্য ভিসার সমস্যা কাটলেই যাব’। এছাড়া আমি নতুন বছরে কলকাতায় গিয়ে কাজ করার রেজোলিউশন নিয়েছি।তাহসান ও মিথিলা ২০০৬ সালে ৩ আগস্ট বিবাহবন্ধনে আব’দ্ধ হন। আইরা তেহরীম খান তাহসান-মিথিলা দম্পতির একমাত্র সন্তান। তাহসান মিথিলার পরিচয় গানের মাধ্যমে। তাহসান তখন ব্ল্যা’ক ব্যান্ডের গায়ক। এক বন্ধুর স’ঙ্গে

তাহসানের আড্ডায় গান শুনতে যান মিথিলা। এরপর ধীরে ধীরে সম্পর্ক পরিণয়ে গড়ায়। বিয়ের পর এ জুটি একাধিক নাটকে অ’ভিনয় করেছেন। ‘আমা’র গল্পে তুমি’, ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস’, ‘ল্যান্ডফোনের দিনগু’লোতে প্রেম’, ‘মধুরেন সমাপয়েত’ নাটকসহ বেশ কয়েকটি নাটকে অ’ভিনয় করেন এই জুটি। নাটক ছাড়াও এ জুটি একস’ঙ্গে গানও গেয়েছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*