ইন্দোনেশিয়ার নিখোঁজ বিমানের সম্ভাব্য ধ্বংসাবশেষ পাওয়ার দাবি

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তা থেকে ৬২ জন যাত্রী নিয়ে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া সিরিউয়িজায়া এয়ারের বোয়িং ৭৩৭ বিমানটি জাভা সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। দেশটির ন্যাশনাল সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ এজেন্সি দাবি করেছে, জাকার্তার উত্তর পশ্চিমের সমুদ্রে বিমানের টুকরো পাওয়া গেছে। কর্মকর্তাদের বিশ্বাস সেগুলো নিখোঁজ বিমানের ধ্বংসাবশেষ। মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সিরিউয়িজায়া এয়ারের বোয়িং ৭৩৭ বিমানটি জাকার্তা থেকে পশ্চিম কালিমানতান প্রদেশের পন্তিয়ানাক-এ যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়ে যায়। ফ্লাইট তদারকি ওয়েবসাইট ফ্লাইটরাডার২৪.কম জানিয়েছে, এক মিনিটেরও কম সময়ের মধ্যে বিমানটি তিন হাজার মিটার উচ্চতা হারায়। দেশটির পরিবহন মন্ত্রণালয় জানায় স্থানীয় সময় দুইটা ৪০ মিনিটে বিমানটির সঙ্গে সর্বশেষ যোগাযোগ করা সম্ভব হয়।

ভারী বৃষ্টির মধে উড্ডয়নের চার মিনিটের মাথায় ২৬ বছরের পুরনো বিমানটি হারিয়ে যায়। ইন্দোনেশিয়ার সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ এজেন্সি জানিয়েছে, হাজার দ্বীপ নামে পরিচিত একটি এলাকায় বিমানের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। এরপরই ওই এলাকায় তল্লাশি জোরদার করা হয়েছে।

বিমানটি গত কয়েক বছরে দুটি বড় বিধ্বস্তের ঘটনায় জড়িত থাকা ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের নয়। এর মধ্যে একটি ২০১৮ সালের অক্টোবরে ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ারের ফ্লাইট সাগরে বিধ্বস্ত হয়ে ১৮৯ জন নিহত হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*