ঋণ খেলাপির দায়ে পাংশায় নৌকা প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

ঋণ খেলাপির অভিযোগে রাজবাড়ীর পাংশা পৌর নির্বাচনের আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী ওয়াজেদ আলী মণ্ডলসহ দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। তবে প্রার্থীরা আপিল করতে পারবেন।রবিবার বেলা ১১টার দিকে পাংশা উপজেলা পরিষদে মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ের পর এ ঘোষণা দেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান।

এ সময় ঋণ খেলাপির অভিযোগে ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোতালেব মোল্লা এবং মনোনয়নপত্রে দাখিলকৃত কাগজপত্র সঠিক না থাকায় ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ফরিদ হোসেন খানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান জানান, ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য রাজবাড়ীর পাংশা পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে চারজন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১১ জন ও ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৪৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন।

নির্ধারিত দিনে রবিবার পাংশা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিসে তাদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর ব্যাংকে ঋণ খেলাপি থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ওয়াজেদ আলী মণ্ডল ও একই কারণে ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোতালেব মোল্লা এবং মনোনয়নপত্রে দাখিলকৃত কাগজপত্র সঠিক না থাকায় ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ফরিদ হোসেন খানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পাংশা উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ফজলুল রহমান ফরহাদ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পাংশা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তার কাগজপত্র সঠিক থাকায় নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই বোর্ড তার মনোনয়নপত্র বৈধ করেছেন। এখন আপিল বোর্ডে ওয়াজেদ আলী মণ্ডল তার প্রার্থিতা ফিরে না পেলে ফজলুর রহমান ফরহাদ হবেন আওয়ামী লীগ তথা নৌকা প্রতীকের প্রার্থী। এমনটাই রবিবার থেকে পাংশায় প্রচারিত হচ্ছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*