এটি কোনও বিয়ের অনুষ্ঠান নয়, পড়লেই জানতে পারবেন আ’সল রহ’স্য

সামিয়ানা টানানো দেখে অনেকেই প্রথমে ভাবেবেন, এটি হয়তো কোন বিয়ের অনুষ্ঠান। অথচ এটি কোন বিয়ে বা অনুষ্ঠানের জন্যে নয়। এর নিচেই চলছে ভোট গ্রহন।পাবনার চাটমোহর পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের শাপলা ক্লাব (সং'ঘ) চত্বরে দীর্ঘদিন ধ’রে ভোট গ্রহন হয়ে থাকে। এই

ওয়ার্ড এলাকায় কোন স্কুল, কলেজ বা প্রতিষ্ঠান না থাকায় একটি ক্লাব ঘরের অঙিনায় তাঁবু টাঙিয়ে ভোটকে’ন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করে ক’র্তৃপক্ষ।এতে করে নির্বাচনী দায়িত্ব পা’লনকারী ক’র্মক'র্তাদের যেমন অসুবিধা হয়, অন্যদিকে রাস্তার উপর লাইন করে নারী-পরুষ ভোটাররা দাঁড়ানোর ফলে রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়ে লোকজনের চলাচলে অসুবিধা হয়।

প্রথম ধাপে গতকাল রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত হয় পাবনার চাটমোহর পৌরসভার নির্বাচন, ভোটগ্রহণ হয় ইভিএমে। সকাল আট'টা থেকে চাটমোহর পৌরসভার ৯টি ভোটকে’ন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত।শাপলা সং'ঘ ভোট কে’ন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার চাটমোহর উপজে’লার মাধ্যমিক শিক্ষা ক’র্মক'র্তা মগরেব আলী

জা’নান, শাপলা সং'ঘের সামনে সামিয়ানা টাঙিয়ে পুরুষের ২টি এবং নারীদের জন্য দু’টি বুথ করা হয়েছে কাপ’ড়ের সামিয়ানার মাধ্যমে পার্টিশান দিয়েএই কে’ন্দ্রে ৫ জন পুলিশ, ১০ জন আনসারসহ ৮ জন নির্বাচনী ক’র্মক'র্তা দায়িত্ব পা’লন করছেন। তাদের স’মস্যার শেষ নেই। রাতে ইভিএম মেশিন রাখার কোনো জায়গা নেই। প্রচন্ড শীতে ১০ জন আনসার সদস্য সারারাত জেগে নির্বাচনের ইভিএম মেশিন পাহারা দিয়েছেন।

তিনি আরও জা’নান, এই কে’ন্দ্রে ৪টি বুথে ৯৭৫ জন ভোটার রয়েছেন। তাদের দাঁড়ানোর জায়গা নেই। নির্বাচনী ক’র্মক'র্তা ও নি’রাপত্তা বা’হিনীর কোনো নি’রাপত্তা নেই। কিভাবে এমন জায়গাকে ভোটকে’ন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়?চাটমোহর উপজে’লা নির্বাচন ক’র্মক'র্তা এবং রিটানিং অফিসার আলমগীর হোসেন বলেন, এই এলাকায় তেমন কোনো জায়গা না থাকায় এখানে তাঁবু টানিয়ে ভোটকে’ন্দ্র বানানো হয়েছে। দীর্ঘ ১৯-২০ বছর ধ’রে মানুষজন এভাবেই ভোট দিয়ে আ’সছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*