কাতার-সৌদির সমঝোতায় আনন্দিত তুরস্ক

প্রায় সাড়ে ৩ বছরের জামেলা নিরসনে সমঝোতায় একমত হয়েছে উপসাগরীয় দুই প্রতিবেশি দেশ সৌদি আরব ও কাতার। এই ২ দেশের সমঝোতাকে স্বাগত জানিয়েছে তুরস্ক। তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে জানায়, ২ দেশের বিরোধ নিষ্পত্তিতে পারস্পরিক সী;মান্ত খুলে দেওয়ার এই উদ্যোগ একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।একই সঙ্গে সংকট দূরীকরণে কুয়েতসহ অন্য দেশগুলোর প্রচেষ্টার প্রশংসা করেছে তুরসকের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমাদের প্রত্যাশা, পারস্পরিক সার্বভৌমত্বের প্রতি শ্রদ্ধার ভিত্তিতে এই বিরোধের একটি পূর্ণাঙ্গ ও স্থায়ী সমাধানে পৌঁছাতে হবে।

উপসাগরীয় দেশ কাতারের জনগণের বিরুদ্ধে অন্যান্য নি;ষেধাজ্ঞাগুলোও অবিলম্বে প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছে আঙ্কারা।গত ২০১৭ সালের ৫ জুন সন্ত্রাসবাদে সমর্থনের অ;ভিযোগ এনে কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিসর। তবে সৌদি জোটের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে কাতার।

কাতারবিরোধী ওই অবরোধ প্রত্যাহারে ১৩ দফা দাবি তুলে ধরেছিল সৌদি জোট। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল আল জাজিরা টেলিভিশন বন্ধ করে দেওয়া, কাতার থেকে তুরস্কের সা;মরিক ঘাঁ;;টি প্র;ত্যাহার এবং মুসলিম ব্রা;দারহুডের সঙ্গে সম্পর্ক ছি;;;ন্ন করা।তবে সৌদি জোটের দাবি প্র;ত্যাখ্যান করে উল্টো তুরস্কের দিকে আরও বেশি ঝুঁ;কে পড়ে কাতার। তুরস্কও কাতারের সমর্থনে এগিয়ে আসে।

গত কয়েক মাস থেকেই কুয়েতের পাশাপাশি সৌদি-কাতার বিরোধ নিরসনে উদ্যোগী হয় ট্রাম্প প্রশাসন। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সৌদি আরবের দিক থেকে কাতার সীমান্ত খুলে দেওয়ার কথা জানায় কুয়েত।ভারতীয় উপমহাদেশের মুসলমানদের অবদান নিয়ে তুর্কি সিরিজ ভারতীয় উপমহাদেশের মুসলমানদের অবদান নিয়ে সিরিজ নির্মাণ করার কথা ঘোষণা করেছে তুরস্ক। এ ব্যাপারে শুক্রবার তুরস্কের একটি প্রতিনিধি দল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সাথে সাক্ষাৎ করেছে।

জানা যায়, যৌথ প্রযোজনার এই সিরিজের নাম হবে ‘তুর্ক লালা’, বাংলায় এর অর্থ দাঁড়ায়-মহান তুর্কি ভাই। সিরিজে মূলত বলকান যুদ্ধের সময় ভারতীয় মুসলমানদের অবদান তুলে ধরা হবে।এদিকে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় তুর্কি সিরিজ দিরিলিস আরতুগ্রুল সফলতা পাওয়ার পরই ভারতের মুসলমানদের নিয়ে কাজ করবে পাকিস্তান ও তুরস্ক।

বিশ্লেষকরা ম

নে করেন, এতে বর্তমান ভারতীয় মিডিয়া আগ্রাসনের একটা মোক্ষম জবাব হতে পারে। কেননা, বলিউডের বিভিন্ন ছবিতে নানা সময়ে মুসলিমবিদ্বেষী সিনেমা-নাটক বানিয়ে মুসলমানদের কোণঠাসা করার চেষ্টা দেখে যায়।অন্যদিকে তুর্কি সিরিজের ভক্তরা নতুন এ খবরে দারুণ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নানা প্লাটফর্মে তাদের আনন্দ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। তাদের অনেকেই জানিয়েছেন, সুন্দর এই সিরিজের জন্য তারা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।সূত্র : আল জাজিরা আরবি

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*