ছাদে নৌকা প্রতীক রাখায় ৪০ হাজার টাকা জ’রিমানা

বাড়ির ছাদে কাঠের তৈরি নৌকা রাখায় মোংলা পোর্ট পৌরসভা নির্বাচনে এক স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থীকে জ’রিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আ’দালত।সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে বাগেরহাটের মোংলা পোর্ট পৌর শহরের মাদ্রাসা রোডের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আ. জলিল শিকদারের বাড়িতে অ’ভিযান চালায় মোংলা উপজে’লা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নয়ন কুমা’র রাজবংশী।

সে সময় বাড়ির ছাদে কাঠের তৈরি একটি নৌকা পাওয়া যায়। অন্য প্রার্থীর নৌকা প্রতীকী’ রাখার দায়ে স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থী আ. জলিল শিকদারকে ৪০ হাজার টাকা জ’রিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আ’দালত।মোংলা উপজে’লা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নয়ন কুমা’র রাজবংশী জানান, নিজের প্রতীক ছাড়া অন্য প্রার্থীর প্রতীকী’ নৌকা রেখে আচরণবিধি লঙ্ঘন করার দায়ে ওই কাউন্সিলর প্রার্থীকে জ’রিমানা করা হয়েছে।

তবে কাউন্সিলর প্রার্থী আ. জলিল শিকদার জানান, তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সক্রিয় সদস্য। তাই আওয়ামী লীগের সম’র্থন নিয়ে নির্বাচন করার ইচ্ছেও ছিল তার। কিন্তু স্থানীয় নেতারা তাকে না দিয়ে অন্য জনকে দলীয় প্রার্থী হওয়া সুযোগ করে দেয়ার কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রার্থীতা

বাছাইয়ের আগে তিনি আওয়ামী লীগের ছিলেন এবং তার পরিবারের সকল সদস্যরা এখনও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতৃত্বে রয়েছেন।নির্বাচনের আগে দলের কাছে নমিনেশন চেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে মিছিল করে সমাবেশ যোগ দেন। ওই সময় তিনি নৌকাটি বানিয়েছিলেন এবং সম্মান সহকারে সেটি বাড়ির ছাদে রেখে দেন।

তিনি আরও বলেন, দল সম’র্থিত প্রার্থীর বি’রুদ্ধে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় তাকে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্যই প্রতিপক্ষ এ ঘটনার ঘটিয়েছে। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করলেও মনে প্রা’ণে এখনও আওয়ামী লীগকে ভালবাসেন। আওয়ামী লীগকে ভালবেসে বাড়ির ছাদে প্রতীকী’ নৌকা রাখা কেন অ’প’রাধ হবে প্রশ্ন স্বতন্ত্র প্রার্থী জলিল শিকদারের।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*