তুর্কী সাম্রাজ্যের পুনরুত্থান এওয়ার্ড স’ম্মাননার জন্য আজারী প্রে’সিডেন্টের নাম ঘোষণা করা হল

নাগোরনো কারাবাখ বিজয়ে অ’সাধারণ নেতৃ’ত্বদা’নের জন্য আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভকে তুর্কী সাম্রাজ্যের পু’নরুত্থান এওয়ার্ড সম্মাননা দিতে যাচ্ছে একটি তুর্কী ফাউন্ডেশন। সোমবার (৪ জানুয়ারি) এই সংক্রান্ত খবর প্রকাশ করে তু’র্কী সংবাদ সংস্থা ইয়েনি শাফাক। খবরে বলা হয়,

১৯ মে তুর্কী সা’ম্রাজ্যের পু’নরুত্থান দিবস উপলক্ষে রবিবার (৩ জানুয়ারি) তুর্কী সা’ম্রা’জ্যের পুন’রুত্থান এওয়ার্ডের জন্য আজারী প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভের নাম ঘোষণা করেছে তু’র্কএসএ’ভি ফাউন্ডেশন। ফা’উন্ডেশনটির প্রধান ই’য়া’হিয়া আকেনগিন ইলহাম আ’লিয়েভের নাম ঘো’ষণা পূর্বক বলেন,

১৯১৯ সালের ১৯ মে গাজী মো’স্তফা কামাল আ’তাতুর্কের হাত ধরে আ’নাতো’লিয়ার মা’লভূমি থেকে তুর্কি বি’শ্বের যে পুনরুত্থান আ’ন্দো’লন শুরু হ’য়েছিল তা এখনো মধ্য এশিয় ও ককেশাস’ অঞ্চলে অব্যাহত রয়েছে। প্রায় ৩ দশক ধরে আ’র্মেনিয়ার দখলে থাকা কা’রাবাখ পু’ন’রুদ্ধারে আজারবাইজানের সাফল্য শুধু তাদের সাফল্যই নয়,

বরং পুরো তুর্কী বিশ্বের সাফল্য। তাছাড়া, এটি সাম্রাজ্যবাদী মানসিকতার বিরুদ্ধে তুর্কী বিশ্বের বিজয়ও বটে। আকেনগিন বলেন, অবস্থার উন্নতি হয়ে করোনার ভয়াবহতা ও জরুরি অবস্থা যখন হ্রাস পাবে, তখন ইলহাম আলিয়েভকে ব্যক্তিগত ভাবে এই সম্মাননা এওয়ার্ডটি প্রদান করা হবে। উল্লেখ্য,

১৯ মে তুরস্কের ইতিহাসের একটি মাইলফলক। কেনোনা ১৯১৯ সালের এই দিনেই মোস্তফা কামাল আতাতুর্ক, কৃষ্ণ সাগরের সামসুন শহর থেকে স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু করেছিলেন, যার ফলাফল স্বরূপ স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরুর চার বছর পর তুরস্ক শত্রু মুক্ত হয় এবং প্রতিষ্ঠিত হয় আজকের আধুনিক তুরস্ক।

এই দিনটিকে তিনি ইউথ এন্ড স্পোর্টস ডে হিসেবে ঘোষণা করে জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে নির্ধারণ করেছিলেন। এই দিবসটি উপলক্ষে তুরস্কে পুরো দেশজুড়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও খেলাধুলার আয়োজন করা হয়, যেখানে তুর্কী যুবসম্প্রদায় অংশগ্রহণ করে থাকে। সূত্র: ইয়েনি শাফাক।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*