নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের বিরু'দ্ধে স্ত্রী’কে মা’রধ’রের অ'ভিযোগ।

খুলনা বি’ভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে কর্মর'ত সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যা’জিস্ট্রেট একেএম তারিকুজ্জামানের বি’রু’'দ্ধে স্ত্রী মা’রপি’টের অ’ভিযোগ উ’ঠেছে। আ’হ’ত নাজিয়া ইসলামকে রোববার সকালে যশোর জে’নারেল হা’সপাতালে ভ’র্তি করা হয়েছে। অ'ভি’যুক্ত তারিকুজ্জামান বিসিএস ৩৪ ব্যাচের কর্মক'র্তা ও যশোরের মনিরামপুর উপজে'লার কুয়াদা গ্রামের জাফর মজিদের ছেলে।

আর আ’হ’ত না’জিয়া ইসলাম যশোর শহরের শংকরপুর এলাকার নজরুল ইসলামের মেয়ে। হা’সপাতালে চিকিৎসাধীন নাজিয়া ইসলাম অ’ভিযোগ করেন, গত ২১ জানুয়ারি স্বামী একেএম তারিকুজ্জামানের গ্রামের বাড়িতে ছিলাম। স্বামী মোবাইল ফোনে এক নারীর স'ঙ্গে কথা ব’লছিল। এ বি'ষয়ে জা’নতে চাইলে স্বামী ক্ষু’ব্ধ হয়ে কা’ঠ দি’য়ে আমা'র মাথা ও ঘা’ড়ে আ’ঘা’ত করে। একই স'ঙ্গে আমা'র ব্য’বহৃ’ত মোবাইল ফোন কে’ড়ে নি’য়ে গৃ’হব’ন্দি করে রাখে।

তিনি বলেন, একপর্যায়ে আমাকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আ'ত্মীয় বাড়িতে রেখে আসে। সেখানে বিনা চিকিৎসায় ভুগছিলাম। আমা'র বাবা খোঁজ পেয়ে উ'দ্ধার করে আজ সকালে (রোববার) যশোর জেনারেল হা’সপাতালে ভর্তি করেছেন। নাজিয়া ইসলাম আরও জানান, স্বামীর বি’রু'দ্ধে যৌ'’তুক ও নি’র্যা’ত’নের দুটি মা’ম’লা চ’লমান আছে। এ মা’ম’লায় তাকে ওএসডিও করা হয়েছিল।

৬ মাস আগে পারিবারিকভাবে মী’মাং’সার পরে আমর'া একস'ঙ্গে থাকা শুরু করি। এরপর অ’ভিযোগ প্রত্যা’হার করলে চা’করিতে যোগ’দানের সুযোগ পায় তারিকুজ্জামান। চাকরিতে যোগ দিয়ে আবার মা’রধ’র শুরু ক’রেছে। অ'ভি’যোগ প্রস'ঙ্গে সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যা’জিস্ট্রেট একেএম তারিকুজ্জামান বলেন, চা’করির সুবাদে মোবাইল ফোনে বিভিন্ন মানুষের স'ঙ্গে কথা বলতে হয়। আমি ফোনে কথা বললেই স্ত্রী সন্দে'হ করে নারীর স'ঙ্গে কথা বলছি।

ফোনে কথা বলা নিয়ে স্ত্রীর স'ঙ্গে বা’কবি’তণ্ডা হয়। একপর্যায়ে স্ত্রী আমা'র বাবা-মা তুলে গা’লিগা’লাজ করে। এর জ’বাবে আমি স্ত্রীকে চ’ড় থা’প্প’ড় মে’রে’ছি। তবে সেটি আ’হ’ত হওয়ার মতো আ’ঘা’ত নয়। যশোর জেনারেল হা’সপাতালের চি’কিৎসক আফজাল হোসেন বলেন, না’জিয়া ইসলামের কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষার ফল পেলে বি’স্তারিত বলা যাব'ে।কোতোয়ালি থা’নার ওসি মো. ম’নিরুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, এ বি'ষয়ে আমা'র জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*