প্রধানমন্ত্রীর কিছু হলে দেশ অচল করে দেয়া হবে !

বঙ্গবন্ধু পরিবারের তৃতীয় প্রজন্ম বাগেরহাট- ২ আসনের এমপি শেখ সারহান নাসের তন্ময় বলেছেন, দেশে আবারও গভীর ষ’ড়য’ন্ত্র শুরু হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কিছু হলে দেশ অচল করে দেওয়ার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্র’স্তুত থাকতে হবে। ৭৫ এর ১৫ আগস্ট যারা বঙ্গবন্ধুর পরিবারকে নিবংশ করতে চেয়েছিলো তারা থেমে নেই।

এই গভীর ষ’ড়য’ন্ত্রের বি’রুদ্ধে আওয়ামী লীগ ও তার অ’ঙ্গ সংগঠনের নেতাকমীদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে এক্যবদ্ধ হতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বিচ্যুত কোনো নেতাকে আমি ভোট দেব না- আপনারাও দিবেন না। মার্কা নায়- সৎ-আদর্শবান প্রার্থীকে বিজয়ি করবেন। বাগেরহাটে চিংড়ি ঘেরেরর ( চিংড়ি খামার) জমির মালিকদে হারির টাকা যারা পরিশোধ করেননি তারা দিয়ে দেন।

বাগেরহাটে কোনো অবৈধ দখলদার- টেন্ডারবাজ থাকতে পারবে না। যারা ঘের দখলসহ নানা অ’পক’র্ম করে বাগেরহাটকে অশা’ন্ত করছেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। এ সময়ে এমপি শেখ তন্ময় সমাবেশে আসা লোকজনকে নিজের মোবাইল নম্বরটি দিয়ে সবাইকে তার সাথে কথা বলতে বলেন।

শনিবার সন্ধ্যায় বাগেরহাট- খুলনা মহাসড়কের ফকিরহাট উপজেলার কাটাখালী মোড়ে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত গ’ণতন্তের বিজয় দিবস উপলক্ষে বিশাল সমাবেশে এমপি শেখ তন্ময় এসব কথা বলেন। প্রায় ৯ মাস পর বাগেরহাটে এসে এমপি শেখ তন্ময় আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার যে স্বপ্ন তা আমাদের বাস্তাবায়ন করতে হবে।

জাতির পিতার আদর্শ আপনারা নষ্ট করবেন না, বাগেরহাটে মংলা বন্দর আছে, সুন্দরবন আছে, আপনারা আছেন, জনগনের কল্যানে কাজ করুন। আপনারা জনগণের হোন। তিনি পুলিশ ও র‌্যাব বাহিনীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, অপরাধী যে দলের হোক না কেন তাকে গ্রে’প্তার করে আইনের আওতায় আনুন। সমাবেশ চলাকালে বঙ্গবন্ধুর ভ্রার্তুষপুত্র বাগেরহাট- ১ আসনের এমপি শেখ হেলাল উদ্দিন মোবাইল ফোনে যুক্ত হয়ে সমাবেশে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।

বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামরুজ্জামান টুকুর সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বাক্তব্য দেন- বাগেরহাট-৪ আসনের এমপি আমিরুল আলম মিলন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ভূইয়া হেমায়েত উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা স্বপন দাস, সরদার ফররুল আলম সাহেব, মনোয়ার হোসেন টগর,

মীর ফজলে সাইদ ডাবলু, নকিব নজিবুল হক নজু, তালুকদার নাজমুল কবির ঝিলাম, শেখ আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, শেখ বসিরুল ইসলাম প্রমুখ। সভা শুরুর আগে বাগেরহাট জেলার ৯টি থানা, পৌরসভা ও বিভিন্ন ইউনিয়ন হতে হাজার হাজার নেতাকর্মীরা মিছিল সহকারে সভা স্থলে এসে হাজির হয়। এসময় সভা স্থল কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে তা জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*