প্রাপ্তির খাতায়ও সেরা ছিল-২০২০

অপ্রাপ্তি আর হারানোর খাতায় যুগের পর যুগ বেঁচে থাকবে- ২০২০ সাল।কেউ ভুলতে পারবেন না সালটাকে তা হলফ করেই বলা যায়।করোনা আতঙ্কে বিধ্বস্ত মানুষ এই বছরে হারিয়েছেন অনেক কিছু।কিন্তু ২০২০ সাল কি শুধুই নিয়েছে আমাদের থেকে, দেয়নি কিছুই? একটু হিসেব কষলেই পাওয়া যাবে, ২০২০ সালটি আমাদের প্রাপ্তির খাতায়ও ছিলো সেরা। করোনার বছরটি আমাদের জীবন ভরিয়েছে নিজের মতো করে। শুধু খুঁজে নেওয়ার অপেক্ষা। যদি বলি ২০২০ আমাদের বাঁচতে শিখিয়েছে, ভুল হবে কি?

আসুন জেনে নেই করোনাকাল কী দিয়েছে আমাদের- লুকিয়ে থাকা আসল হিরো: পর্দা কাঁপানো সুপারস্টাররা কিন্তু হিরো নন।আসল হিরো তারা, যারা করোনা কালেও মানুষের জীবন বাঁচানোর কাজে যুক্ত ছিলেন।প্রায় নিশিচত মৃত্যু জেনেও রোগীদের চিকিৎসায় ঝাঁপিয়ে পড়েছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা, নিজের জীবন বিপন্ন করে তথ্য সরবরাহ করেছেন যে সব সাংবাদিকরা বা লকডাউন চলাকালীন আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব যাদের কাঁধে ছিল, সেই পুলিশ কর্মীরা দেখিয়ে দিয়েছেন আসল হিরোগিরি কাকে বলে।যারা নিজেদের প্রিয়জনের কথা ভাবেননি, এগিয়ে এসেছেন সমাজের সেবায়, দশের দায়িত্ব নিতে।

প্রাণ খুলে শ্বাস নিয়েছে পরিবেশ: এই দুনিয়ায় মানুষই একমাত্র প্রাণী নয়। সেকথা প্রায় ভুলতে বসেছিলাম আমরা। অন্য প্রাণীদের তোয়াক্কা না করে স্বার্থপরের মত পরিবেশের ক্ষতি করে চলেছিলাম। করোনার জেরে লকডাউন দেখিয়ে দিল মানুষ ছাড়া এই বিশ্ব কত সুন্দর। মানুষ ঘরে বসে থাকার দরুণ, রাস্তায় গাড়ি না চলাচলের দরুণ শ্বাস নিল পৃথিবী। সবুজ হল পৃথিবী। কমল দূষণ, মেরামত হল চারপাশের পরিবেশ।

পরিবারের সঙ্গে সময়: শেষ কবে পরিবারের সঙ্গে একসাথে বসে গল্প করেছেন, খাবার খেয়েছেন, মনে ছিলো না অনেকেরই।এই করোনা সময় করে দয়েছে তাদের।বাড়িতে বসে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর অনবদ্য সুযোগ এনে দিয়েছে সবার সামনে। ২০২০ সাল তাই এমন এক বছর, ‘পরিবার কী’ তা বুঝিয়েছে। আপনজনদের কাছে নিয়ে এসেছে। প্রিয়জনেদের সঙ্গে বসে কথা বললে কোনও ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ডের ওপর নির্ভর করার দরকার পড়ে না, তা বুঝিয়েছে। তৈরি হয়েছে স্মৃতি, মুহুর্তের বুনোটে বাসা বেঁধেছে ছোট্ট ছোট্ট গল্প।

মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা: মানসিক অবসাদ বা ডিপ্রেশন যে কোনও বিলাসিতা নয়, তা বুঝিয়েছে ২০২০। সাধারণ মানুষ, আপনি-আমি সচেতন হয়েছি মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে। মন খারাপের পরিণাম সম্পর্কে অবগত হয়েছি আমরা। তাই ডিপ্রেশনে কথা বলতে শিখিয়েছে ২০২০। বিষন্নতা, দুশ্চিন্তা,

মন খারাপ নিয়ে আমরা যেমন কথা বলি, তেমনি আড়ালে নেই ম্যানিয়া, সিজোফ্রেনিয়ার মতবড় রোগগুলোও। কিন্তু আসলেই কি আমরা সবাই আমাদের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন? একটা সময় এর উত্তর ছিল, না। কিন্তু এখন আমরা বুঝতে শিখেছি এই মানসিক টানাপোড়েনেরও প্রতিকার রয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*