বিয়ের আংটি পরার দিন কবরের যাত্রী হলেন সবুজ, হৃদয়বিদারক দৃশ্যে বাকরু'দ্ধ মা

আট' হাজার টাকায় মাইক্রোবাস ভাড়া করা হয়েছিল। রাত পোহালেই ঢাকার দোহারে সবুজের জন্য মেয়ে দেখে আংটি পরানোর কথা ছিল। কিন্তু আংটি আর পরানো হলো না। তবে তার আগেই কবরের যাত্রী হলো সবুজ।ম'ঙ্গলবার সকালে কাঁদতে কাঁদতে এ কথাগু'লো বলেন সবুজের বড় ভাই ব্যাংকার রেজাউল করিম শামীম।

সকালে হাজীগঞ্জ উপজে’লার ৯নং গন্ধব্যপুর (উ.) ইউনিয়নের মোহা'ম্ম’দপুর ফরাজিবাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে হৃদয়বিদারক দৃশ্য। বাবা মোতালেব ও মা খুশিদা বেগম বাকরু'দ্ধ। চলছে দা'ফনের প্রস্তুতি।

এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় কামর'ুল ইসলাম সবুজ ও তার বন্ধু আরিফ, ইব্রাহিম কচুয়ায় একটি জানাজায় অংশ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দু’র্ঘটনায় মা’রা যান। এ সময় বেঁচে যান চালক ইব্রাহিম।

সবুজের ভাই রেজাউল করিম শামীম ও আরিফের স্বজন হাবিবউল্যা মজুম’দার বলেন, নি’'হতদের মৃ'’তদে'হ কচুয়া থানা থেকে বাড়ি আনা হয়েছে। দা'ফনের প্রস্তুতি চলছে।পুলিশ জানায়, তিন বন্ধু নানাবাড়ি কচুয়া উপজে’লার তুলাতলী গ্রামে এক জানাজা অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে মোটরসাইকেলে হাজীগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হন।

হাজীগঞ্জ-গৌরীপুর কচুয়া সড়কের ডুমুরিয়া নিলামপাড়া এলাকায় সোমবার সন্ধ্যায় মালবাহী ট্রাকের স'ঙ্গে তাদের মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সং’ঘর্ষ হয়। স্থানীয়রা গু'’রুতর আ’'হত তিনজনকে উ’'দ্ধার করে কচুয়া উপজে’লা স্বা’স্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে ক'র্তব্যরত চিকিৎসক কামর'ুল ইসলাম সবুজকে মৃ'’ত ঘোষণা করেন। আ’'হত আরিফ ঢাকা নেওয়ার

পথে মা’রা যান।গু'’রুতর আ’'হত ইব্রাহীমকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা স্থানান্তর করা হয়েছে।নি’'হত কামর'ুল হাসান সবুজ মোহা'ম্ম’দপুর গ্রামের আবদুল মোতালেবের ছেলে ও আরিফ হোসেন জগন্নাথপুর গ্রামের জয়নাল আবেদীন খোকনের ছেলে। তারা দুজনে হাজীগঞ্জ মডেল স’রকারি কলেজে অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*