ভাইয়ের পা ধরে মাফ চেয়েও বাঁচতে পারলেন না, বাকপ্রতিবন্ধী স্ত্রীর আহাজারি

‘আমার ছেলের ‘ফাঁ”সি চাই। ও প্ল্যান করে ‘মে”রে ফে’লেছে। আমার বউ মা বোবা, কথা বলতে পারে না। তার মাসুম দুই সন্তানের কী হবে?’ বুধবার (২৭ জানুয়ারি) সকালে নগরের পাহাড়তলীর বার কোয়ার্টার এলাকায় ভাইয়ের ছু”রি’কা’ঘা”তে নি’হ’ত মো. নিজাম উদ্দীনের মা জিন্নাত আরা বেগম এভাবেই ছেলের ‘ফাঁ”সি’ চাইলেন।

তিনি বলেন, দুই ভাই দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছিলেন। পারিবারিক জায়গা নিয়েও বি’রো”ধ ছিল। আমার ছেলের ‘খু”Tনে’র জন্য আমার আরেক ছেলে কামরুল ইসলাম দায়ী। আমি তার ‘ফাঁ”সি চাই।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমার বড় নাতি ইমন দেখছিল, নিজাম ভাইয়ের পা ‘ধ’রে বলছিল মা’ফ করে দাও। কিন্তু সে মা’ফ করেনি। ‘মে’রে ফেলেছে। নি’হ”ত নিজামের স্ত্রী নাসরিন আকতার সু’মি বা”ক প্র’তিব”ন্ধী। তিনি নিজের ভা’ষায় বলার চেষ্টা করছিলেন সব ঘটনা। বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন তার মা ও শাশুড়ি।

সুমি জানান, অনেক দিন ধরে আমাদের ওপর ‘অ”ত্যা’চা”র করে আসছিল কামরুল। ‘মা’রা’র ‘হু’ম”কিও দিয়েছিল।সুমির ছেলে ইব্রাহিমের বয়স মাত্র ৮ মাস। মেয়ে বিবি মরিয়মের বয়স আড়াই বছর। নি’হ’ত নিজামের বোন বিবি জোহরা মুক্তা বি’লা’প করে কাঁ”দছি’লেন ভাইয়ের শোকে। তিনি বলেন, আমার ভাতিজা, ভাতিজির কী হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*