মাদ্রাসা ভাঙচুরের ঘটনায় বাবুনগরীর তীব্র প্রতিবাদ জানালো!

চট্টগ্রাম ফটিকছড়ির মাইজভান্ডারস্থ মান্নানীয়া পশ্চিম নানুপুর দারুচ্ছালাম ঈদগাহ মাদ্রাসা নির্মাণকে কেন্দ্র করে ভাঙচুর ও তৌহিদি জনতার ওপর গু’লিবর্ষণের ঘটনার কড়া সমালোচনা করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির, হাটহাজারী মাদ্রাসার শায়খুল হাদীস ও শিক্ষা পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

মঙ্গলবার (০৫ জানুয়ারি) সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে আমিরে হেফাজত আল্লামা বাবুনগরী বলেন, চিহ্নিত সন্ত্রাসীগোষ্ঠী দারুচ্ছালাম ঈদগাহ মাদ্রাসার নির্মাণকে কেন্দ্র করে ভাঙচুর চালিয়ে এবং তৌহিদি জনতার ওপর গু’লিবর্ষণ করে ফটিকছড়ির শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করছে চিহ্নিত সন্ত্রাসীগোষ্ঠী।

এভাবে দিনদুপুরে তৌহিদি জনতার ওপর গু’লিবর্ষণ ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে হা’ম’লা করে র’ক্তা’ক্ত করার ঘটনা চরম উদ্বেগজনক। অনতিবিলম্বে এই সন্ত্রাসী হা’ম’লার নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদেরকে গ্রে’ফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী আরও বলেন, কওমী মাদ্রাসা দ্বীন রক্ষার মজবুত দুর্গ।

দ্বীন ইসলামের সংরক্ষণে কওমী মাদ্রাসা ও ওলামায়ে কওমীয়ার অবদান অনস্বীকার্য। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় কওমী মাদ্রাসা অনেক অবদান রয়েছে। যারা কওমী মাদ্রাসায় হা’ম’লা করে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করতে চায় এদেশের তৌহিদি জনতা তাদের কালো হাত ভেঙে দেবে। এদেশের জনগণ মাদ্রাসা প্রিয়, আলেম প্রিয়।

আমিরে হেফাজত বলেন, ওই মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকের কোনো প্রকারের দোষ না থাকা সত্ত্বেও সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে মাদ্রাসায় ভাঙচুর ও হা’ম’লার ঘটনা ঘটানো হয়েছে। কওমী মাদ্রাসায় এহেন সন্ত্রাসী হা’ম’লা কখনো মেনে নেওয়া যায় না।

এ ঘটনায় যারা হ’তাহ’ত হয়েছে তাঁদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করে মাদ্রাসার নির্মাণ কাজে ভাঙচুরের যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি একটি শান্তিপ্রিয় থানা উল্লেখ করে আমিরে হেফাজত আল্লামা বাবুনগরী বলেন, চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের পুণ্যভূমি।

ফটিকছড়ির মানুষ শান্তিপ্রিয়। সম্প্রতি একটি চিহ্নিত সন্ত্রাসীগোষ্ঠী কওমী মাদ্রাসায় হা’ম’লা, শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের শানে বিষোদগার করে ফটিকছড়ির শান্তিশৃঙ্খলা বিনষ্ট করার পায়তারা করছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকতে হবে এবং স’ন্ত্রাসীগোষ্ঠীর বি’রুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*