মানোন্নয়ন শিক্ষার্থীদের এইচএসসির ফল যেভাবে

সাবজেক্ট ম্যাপিং করে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মানোন্নয়ন দিতে চাওয়া শিক্ষার্থীদের ফল দেয়া হবে। এক্ষেত্রে যে বিষয়গুলোতে শিক্ষার্থীরা মানোন্নয়ন দিতে চেয়েছিল, এসএসসি ও জেএসসি পরীক্ষায় সেই বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে তার রেজাল্ট প্রকাশ করা হবে।

শুক্রবার (১ জানুয়ারি) সকালে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার রেজাল্ট সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে রেজাল্ট নিয়ে কাজ করা টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এসএম আমিরুল ইসলাম দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মানোন্নয়ন দিতে চাওয়া শিক্ষার্থীদেরও জেএসসি এবং এসএসসি পরীক্ষায় ওই বিষয়ের ওপর প্রাপ্ত নম্বর গড় করেই রেজাল্ট দেয়া হবে। এক্ষেত্রে কারো যদি মানোন্নয়ন দিতে চাওয়া বিষয়টি এসএসসি কিংবা জেএসসিতে না থাকে তাহলে ওই বিষয়ের সাথে সামঞ্জস্য আছে এমন বিষয়ের নম্বর গড় করে তার রেজাল্ট দেয়া হবে।তিনি আরও বলেন, যেহেতু রেজাল্ট নিয়ে সন্তুষ্ট না হওয়াতেই শিক্ষার্থীরা মানোন্নয়ন পরীক্ষা দিতে চায়, সেহেতু মানোন্নয়ন দেয়া কোনো শিক্ষার্থীরই রেজাল্ট খারাপ হবার সম্ভাবনা নেই। আমরা সেভাবেই ফলাফল তৈরি করার জন্য সফটওয়্যার আপডেট করেছি।

চতুর্থ বিষয়ের নম্বর যোগ করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, চতুর্থ বিষয়ের নম্বরসহ এইচএসসির ফলাফল প্রকাশ করা হবে। শিক্ষার্থীদের এসএসসি পরীক্ষাতেও ব্যবহারিক বিষয় ছিল। এসএসসিতে ব্যবহারিক বিষয়গুলোর নম্বরসহ রেজাল্ট প্রকাশ করা হয়েছে। সেই নম্বর অনুযায়ীই এইচএসসি ও সমমানের রেজাল্ট দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও করোনা সংক্রমণের কারণে তা বাতিল করা হয়। শিক্ষার্থীদের জেএসসি এবং এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলকে প্রাধান্য দিয়ে এবারের এইচএসসি সমমানের পরীক্ষার ফল দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে জেএসসি-জেডিসির ফলাফলকে ২৫ এবং এসএসসির ফলকে ৭৫ শতাংশ বিবেচনায় নিয়ে ফল ঘোষিত হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*