যেসব লক্ষণে বুঝবেন হার্ট অ্যা’টাকের ঝুঁ’কিতে আপনি

হার্ট অ্যাটাক এক নীরব ঘাতক। যে কেউ যেকোনো সময় এর শিকার হতে পারেন। শরীরচর্চা না করা, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যগ্রহণ ও জীবনযাপনে অনিয়ম হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায়।

এর লক্ষণগুলো জানা থাকলে একটি জীবন হয়তো বাঁচিয়ে দেয়া সম্ভব।বয়স একটু বেশি হলেই হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা ঘিরে ধরে মানুষকে। বুকে হালকা চিন চিন ভাব ও নিঃশ্বাস নিতে সমস্যা হলেই মনে প্রশ্ন জাগে।প্রথমত, হঠাৎ করে বুকে ব্যথা হলে সেটি হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। যাকে বলা হয় মাওকার্ডিয়াল ইনফ্রাকশান।এই সময় শিরার মধ্যে রক্তের গতি বন্ধ হয়ে যায়। আবার কিছু ক্ষেত্রে গতি কমে যায়।

কিন্তু বন্ধ হয় না। অনেক সময় দৌড় ঝাঁপ করার সময় শিরা ধমনী দিয়ে যতটা রক্ত যাতায়াত করে ততটা জোরে হার্ট পাম্প করতে পারে না। তখন ব্যথা হয়। হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা থাকে।হার্ট অ্যাটাক পূর্বে শুধুমাত্র বয়স্কদের ক্ষেত্রেই দেখা যেত। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে, অল্প বয়সীদের মধ্যেও বেড়ে গিয়েছে এই প্রবণতা। মনে রাখবেন, জাঙ্কফুড, কাজের নির্দিষ্ট সময় না থাকা ও ওয়ার্ক ফর্ম হোম হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম কারণ।

পুরুষদের চেয়ে নারীদের হার্ট অ্যাটাক কম হয়। নারীদের মেনোপজের পর হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তাই, মেনোপজের পর মহিলাদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।বুকের মাঝ থেকে ব্যাথা ছড়িয়ে মাঝখান পর্যন্ত যাচ্ছে বুঝবেন হার্ট অ্যাটাকের সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। দেরি না করে শীঘ্রই চিকিত্‍সকের পরামর্শ নিন।আগে যে কাজ অবলীলায় করতেন, তা করতেই ভীষণ হাঁপ ধরে যাচ্ছে। যা অন্যতম লক্ষণ, আপনার হার্ট দুর্বল হয়ে পড়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*