স্বামীর নামের জায়গায় শাকিবের নাম লিখে বিপাকে নায়িকা অপু বিশ্বাস

শাকিব খান এবং অপু বিশ্বাসের বিচ্ছেদ হয়েছে তিন বছরের বেশি হয়ে গেছে। আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদের পরও কাগজপত্রে স্বামীর নামের জায়গায় শাকিব খানের নাম লিখে বিপদে পড়লেন নায়িকা অপু বিশ্বাস। জানা যায়, প্রযোজক সমিতির সদস্যপদ পেতে আর্থিক সুবিধা নিতেই অপু বিশ্বাস এমন কর্ম করেছেন।

প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছেন ঢালিউড এই কুইন। প্রযোজক সমিতির সদস্যপদ পেতে আবেদনপত্রে অপু তার স্বামীর নামের জায়গায় শাকিব খানের নাম লিখেছেন। পরে যাচাই-বাছাইয়ে আটকে যায় তার আবেদন। তথ্য সংশোধন করে জমা দেওয়ার পর সদস্যপদ পান তিনি।

এই বিষয়ে প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম গণমাধ্যমে জানান, সাধারণত কাউকে চলচ্চিত্রের প্রযোজক হিসেবে নাম নিবন্ধন করতে হলে এক লাখ তিন হাজার টাকা ফি দিতে হয়। কিন্তু কোনো প্রযোজকের স্বামী বা স্ত্রী বা সন্তান হলে তিনি মাত্র ১১ হাজার টাকা ফি দিয়েই এই সদস্যপদ লাভ করার সুযোগটা পেতে পারেন। শামসুল আলম মনে করেন, এই সুযোগটাই নিতে চেয়েছিলেন অপু।

শামসুল আলম বলেন, আমরা দেখতে পেলাম, নথিতে নিজেকে শাকিব খান রানার স্ত্রী উল্লেখ করেছেন অপু। তিনি এ ও লেখেন, ‘প্রযোজকের স্ত্রী হিসেবে আমাকে সুবিধা বিবেচনায় সদস্যপদ দেওয়া হোক। তিনি বলেন, এই ধরনের মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে কাউকে সদস্যপদ দেওয়া মানে মিথ্যাকে প্রশ্রয় দেওয়া। এরপর আমরা সবাই অপুর সত্য গোপন করার বিষয়টি মিটিংয়ে আলোচনা করেছি।

সবাই একবাক্যে বলেছেন, ১ লাখ ৩ হাজার টাকার বদলে ১১ হাজার টাকায় সদস্যপদের বিশেষ সুবিধা নিতে এমনটা করেছেন তিনি। তাই আবেদনের ফাইলটা স্থগিত করে দিই, তথ্য সংশোধন করে নতুনভাবে আবেদন করলে আমরা অবশ্যই সদস্যপদ দেব। পরে তিনি স্বামীর নামের জায়গা থেকে শাকিব খানের নাম বাদ দিয়ে আবেদন করেন, আমরাও সদস্যপদ দিই। তাকে এক লাখ তিন হাজার টাকায় সদস্যপদ নিতে হয়েছে।

সন্তান আব্রাম খান জয় এবং নিজের নামের সঙ্গে মিল রেখে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান চালু করেছেন অপু বিশ্বাস। ‘অপু-জয় প্রোডাকশন হাউস’ এর ব্যানারে ‘অভিমান’ নামে একটি ছবির নামও নিবন্ধন করেছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*