৩৫ শব্দের স্ট্যাটাসে ৯ ভুল, শিক্ষক বললেন বাংলা লিখতে পারেন না

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক এনায়েত হোসেন ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ৪০ মিনিটে নিজের ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে দেওয়া ৩৫ শব্দের পোস্টের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নামসহ ৯টি শব্দের বানান ভুল রয়েছে।

বানান ভুলগুলো মধ্যে, প্রদান মন্ত্রী (প্রধানমন্ত্রী), শেখ হাসীনা (শেখ হাসিনা), নিরাপাদ (নিরাপদ), শুক্রিয়া (শুকরিয়া), জিনি (যিনি), নুতন (নতুন), ক্রুন (করুন) অন্যতম। এছাড়া দু-একটি বাক্য গঠনেও রয়েছে বেশ অসামঞ্জ্যতা।

বানান ভুলের বিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক এনায়েত হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি বাংলা লিখতেই পারি না। নিজে টাইপ করেছি অভ্র দিয়ে। আমি এখনই বানানগুলো ঠিক চেষ্টা করছি।’

একজন সহকর্মীর এ ধরনের বানান ভুলের কারণে বিব্রত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র অধ্যাপকরা। তারা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপকের কাছ থেকে এ ধরনের বানান ভুল কোনোভাবে কাম্য নয়। এটি মাতৃভাষার প্রতি চরম অবমাননার ও দায়িত্বহীনতার বহিঃপ্রকাশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আশরাফুল আলম খান বলেন, ‘ইচ্ছাকৃত কিংবা অনিচ্ছাকৃতভাবে এ ধরনে বানান ভুল দুঃখজনক। শুধু প্রধানমন্ত্রী বলে নয়, দেশের যেকোনও বরেণ্য ব্যক্তির নামের বানান ভুল কোনোভাবে কাম্য হতে পারে না।’

অধ্যাপক এনায়েত হোসেন কী লিখেছে দেখেননি জানিয়ে ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক মলয় ভৌমিক বলেন, ‘বাংলা ভাষার প্রতি অনেকেরই অবহেলা লক্ষ্য করা যায়। যারা মাতৃভাষায় দক্ষ না হয়, তারা কখনোই শিক্ষিত বিজ্ঞ ব্যক্তি হয়ে উঠতে পারে না।’

নাম প্রকাশ না করা শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের এক সিনিয়র অধ্যাপক বলেন, ‘একজন পূর্ণাঙ্গ অধ্যাপকের এতাগুলো বানান ভুল চরম দায়িত্বহীনতার পরিচয়। মাতৃভাষার প্রতি চরম অবমাননাকর। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পদাধিকারীদের সম্বন্ধে লিখতে গিয়ে এ রকম ভাষা বিকৃতি কোনও মতেই কাম্য নয়।’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*