৬৫০ ফুট চূড়ায় প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব, অতঃপর…

৬৫০ ফুট চূড়ায় প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে বেশ সাড়া জাগিয়েছেন এক তরুণ। রাজি হয়েছিল ওই তরুণীও। কিন্তু তাদের এ সুখ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। পর্বতে হাঁটু গেড়ে যখন তরুণ প্রস্তাব দিচ্ছিলেন তখনই পা পিছলে পড়ে যায় প্রেমিকা।

৬৫০ ফুট চূড়ায় প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে বেশ সাড়া জাগিয়েছেন এক তরুণ। রাজি হয়েছিল ওই তরুণীও। কিন্তু তাদের এ সুখ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। পর্বতে হাঁটু গেড়ে যখন তরুণ প্রস্তাব দিচ্ছিলেন তখনই পা পিছলে পড়ে যায় প্রেমিকা।এ সময় তাকে হাত বাড়িয়ে ধরতে গিয়ে খাঁদে পড়ে যান ওই প্রেমিকও। তারা দু’জনই প্রাণে বেঁচে গেছেন। কিন্তু যখম হয়েছেন তারা।ঘটনাটি ঘটেছে ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়ার দক্ষিণাঞ্চল ক্যারিনথিয়ায়। এটি আল্পস পর্বতমালার পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ২৬ ডিসেম্বর ফলকার্ট পর্বতের চূড়ায় ওঠেন ওই প্রেমিক–প্রেমিকা। পরদিন ৩২ বছর বয়সী প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ২৭ বছর বয়সী প্রেমিক।তখন ওই তরুণী পাহাড়ের একেবারে ধারে দাঁড়িয়ে ছিলেন। একপর্যায়ে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। ৬৫০ ফুট ওপর থেকে পড়ে গেলেও বরফের স্তূপ থাকায় প্রেমিকা বেঁচে যান।প্রেমিকার পড়ে যাওয়া দেখে প্রেমিকের স্থির না থাকারই কথা। এই ক্ষেত্রেও সেটাই হয়েছে। পড়ে যাওয়া প্রেমিকাকে ধরার চেষ্টা করেন প্রেমিক। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। উল্টো তিনিও পা ফসকে ৫০ ফুট নিচে গিয়ে পড়েন।

ওই প্রেমিক–প্রেমিকাকে উদ্ধারকাজে যুক্ত থাকা একজন পুলিশ কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, দু’জনের ভাগ্য ভালো। এখানে যদি তুষারপাত না হতো, তাহলে পরিস্থিতি ভিন্ন হতে পারত। দুজনকেই চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তরুণের শরীরে জখম ছিল।একজন পথচারী সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ওই তরুণীকে পড়ে থাকতে দেখে জরুরি সেবা বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সেবা বিভাগের লোকজন এসে দুজনকে উদ্ধার করেন। পর্বতের খাড়া প্রান্ত থেকে প্রেমিককে উদ্ধার করতে ব্যবহার করা হয় হেলিকপ্টার।

এ সময় তাকে হাত বাড়িয়ে ধরতে গিয়ে খাঁদে পড়ে যান ওই প্রেমিকও। তারা দু’জনই প্রাণে বেঁচে গেছেন। কিন্তু যখম হয়েছেন তারা।ঘটনাটি ঘটেছে ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়ার দক্ষিণাঞ্চল ক্যারিনথিয়ায়। এটি আল্পস পর্বতমালার পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত।ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ২৬ ডিসেম্বর ফলকার্ট পর্বতের চূড়ায় ওঠেন ওই প্রেমিক–প্রেমিকা। পরদিন ৩২ বছর বয়সী প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ২৭ বছর বয়সী প্রেমিক।

তখন ওই তরুণী পাহাড়ের একেবারে ধারে দাঁড়িয়ে ছিলেন। একপর্যায়ে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। ৬৫০ ফুট ওপর থেকে পড়ে গেলেও বরফের স্তূপ থাকায় প্রেমিকা বেঁচে যান।প্রেমিকার পড়ে যাওয়া দেখে প্রেমিকের স্থির না থাকারই কথা। এই ক্ষেত্রেও সেটাই হয়েছে। পড়ে যাওয়া প্রেমিকাকে ধরার চেষ্টা করেন প্রেমিক। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। উল্টো তিনিও পা ফসকে ৫০ ফুট নিচে গিয়ে পড়েন।

ওই প্রেমিক–প্রেমিকাকে উদ্ধারকাজে যুক্ত থাকা একজন পুলিশ কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, দু’জনের ভাগ্য ভালো। এখানে যদি তুষারপাত না হতো, তাহলে পরিস্থিতি ভিন্ন হতে পারত। দুজনকেই চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তরুণের শরীরে জখম ছিল।একজন পথচারী সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ওই তরুণীকে পড়ে থাকতে দেখে জরুরি সেবা বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সেবা বিভাগের লোকজন এসে দুজনকে উদ্ধার করেন। পর্বতের খাড়া প্রান্ত থেকে প্রেমিককে উদ্ধার করতে ব্যবহার করা হয় হেলিকপ্টার।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*