আমর'া শহিদুলের বাবার জন্য খেলেছি: মাশরাফি

মাত্র পাঁচদিন আগে বাবা হারা হয়েছেন জেমকন খুলনার পেসার শহিদুল ইসলাম। বাবাকে দা'ফন শেষে আবারও দলের স'ঙ্গে যোগ দেন ডানহাতি এই পেসার। প্রথম কোয়ালিফা’য়ারে খেলতে না পারলেও টুর্নামেন্টের ফাইনালের একাদশে জায়গা পেয়েছেন তিনি। তাঁর বাবা মা'রা যাওয়ায় ফাইনালটি শহিদুল এবং তাঁর বাবার জন্য খেলেছেন বলে জানিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।

প্রথম কোয়ালিফা’য়ারে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে মহাগু'রুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাঠে নামা'র আগে বাবা হারান শহিদুল। ১৩ ডিসেম্বর (রবিবার) দুনিয়া ছেড়ে পারাপারে পাড়ি জমান তাঁর বাবা। জীবনের এত বড় একটি দুঃখের দিনে তাই আর দলের স'ঙ্গে থাকেননি তিনি।

বাবার নিথর দে'হটি শেষবার মত দেখার জন্য ১৩ ডিসেম্বর রাতেই নিজ বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সি'দ্ধিরগঞ্জে ফিরে যান তিনি। যে কারণে প্রথম কোয়ালিফা’য়ার ম্যাচে তাই দলের গু'রুত্বপূর্ণ পেসারকে পায়নি খুলনা। বাবাকে দা'ফনে করে পরবর্তী দলে স'ঙ্গে যোগ তিনি। হোটেলে কোয়ারেইন্টাইনে থেকে করো’না নেগেটিভ হওয়ার পর খেলার অনুমতি পান।

শহিদুলের বাবাকে উৎসর্গ করতেই ক্রিকেটাররা আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন বলে জানিয়েছেন মাশরাফি। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ম্যাচের আগে সতীর্থদের বলেছিলেন, আমর'া শহিদুলের জন্য খেলব। শহিদুলকে জয় উপহার দিতে পারায় সৃষ্টিক'র্তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মাশরাফি।

এ প্রস'ঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘সবকিছুর জন্য সৃষ্টিক'র্তা আল্লাহকে ধন্যবাদ। যখন আমি ঘরোয়া ক্রিকে'টে খেলেছি সবসময়ই চ্যাম্পিয়ন। বিশেষ করে যখন আমি ফাইনাল খেলেছি। এটার জন্য আল্লাহকে ধন্যবাদ এবং একটা জিনিস যে আমর'া সবাই শহিদুলের বাবার জন্য খেলেছি। সে পাঁচদিন আগে মা'রা গেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমা'দের অধিনায়ক বলেছে যে আমর'া শহিদুলের জন্য খেলব। তারা বাবা মা'রা যাওয়ার কারণে বাড়িতে ছিল এবং হোটেলে সে গত তিনদিন কোয়ারেন্টাইনে ছিল। সে পরীক্ষায় নেগেটিভ হয় এবং সে খেলেছে। আমর'া শুধু তার জন্য খেলেছি। আল্লাহকে ধন্যবাদ যে আমর'া তাঁর জন্য জয়ে এনে দিতে পেরেছি।’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*