আমা'র মায়ের খুব কষ্ট, মাকে বাঁচাতে দুটি শিশুর করুন আকুতি!

আমা’র মাকে আপনারা দয়া করে বাঁচান, আমা’র মায়ের খুব ক’ষ্ট! আমা’র মা সারাদিন খালি আমা’দের দুই ভাইকে জড়িয়ে ধরে কাঁদে, ঠিকমত কিছু খায়না। আর থাকি থাকি প্রচন্ড যন্ত্রনায় মাটিতে গড়াগড়ি করে। মাসুম ছেলে হোসাইন এখনও ঠিকমত কথা বলতে না পারলেও ছোট ভাইকে কোলে নিয়ে অঝোরে কাঁদতে কাঁদতে কথাগু'’লো বলেন অ’সুস্থ আয়শা বেগমের বড় ছেলে জাহিদ হাসান।

বলছি কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজে’লার মন্নেয়ার পাড় গ্রামের অ’সুস্থ আয়শার কথা। আয়শা বেগম দুরারোগ্য ব্যাধি (ফেবরোয়িড ইউট্রাস) রোগে আ’ক্রা'’ন্ত। রোগটি স্পর্শকাতর ও অতি বিপদজনক জায়গায় হওয়ায় ডাক্তার আজ থেকে ১ বছর আগে আয়শাকে অ’পারেশন করতে বলেন। ডাক্তার আরও আশংকা প্রকাশ করে বলে অ’পারেশন না করতে পারলে তার রোগটা ক্যান্সারে রুপ নিতে পারে। অ’পারেশন এবং অ’পারেশন পরবর্তী ওষুধের জন্য প্রায় ৬০ হাজার টাকা লাগবে বলে জানায়।

কিন্তু যেখানে দরিদ্র আয়শার স্বামী দু’বেলা দু-মুঠো ভাত জোগাড় করতেই হিমসিম খায় সেখানে ৬০ হাজার টাকা যোগাড় করা প্রায় স্বপ্নের মতোই ব্যাপার। তাই অ’সহায়ত্বকে পুঁজি করে আল্লাহপাকের উপর সব ছেড়ে দিয়ে নিরবে নিভৃতে কাঁদা ছাড়া আর কি ই বা করতে পারে আয়শার পরিবার।

উল্লেখ্য চলতি মাসের ৮ তারিখে ‘দুটি ছোট বাচ্চার জন্য মায়ের বাঁ’চার আকুতি!’ শিরোনামে সময়ের কন্ঠস্বরে খবর প্রকাশ হয়। খবর প্রকাশের পরে তার জন্য কেউই এগিয়ে আসেনি। এ খবরটি আয়শাকে দিলে আজ শনিবার ১৩/০২/২১ প্রচন্ড কান্নায় ভে’'ঙ্গে পড়েন অ’সুস্থ আয়শা বেগম।

আয়শার দুই শিশু জাহিদ হাসান ও হোসাইন । এর মধ্যে বড় ছেলে জাহিদ হাসানের এ প্রতিবেদকের সাথে কথা হলে সে অঝরে কাঁদতে কাঁদতে বলেন, আমা’দের মা’কে আপনারা বাঁচান। আমা’দের মা সারাদিন মন খারাপ করি থাকে, খালি কাঁদে, ব্যাথায় চিৎকার করে, ঠিকমতো কথা বলে না কিছু খেতে পারে না। তিব্র ব্যাথায় মাটিতে গড়াগড়ি করে। আপনারা আমা’দের মাকে বাঁচান।

কথা হলে আয়শা বেগম এ প্রতবেদককে বলেন, মুই বাঁ’চার আশা ছাড়ি দিচং! প্রচন্ড পেট ব্যাথা,তলপেট খচাখচি করা, আজগু'’বি পুরো শরীরে তাপ ওঠা,হঠাৎ করে মুখ ফুলে যাওয়ার কারণে সারাদিন চরম ক’ষ্টে থাকি। এখন কয়েকদিন থাকি বেশি হইছে। সহ্য করবের পাংনা। এতো ক’ষ্টের চেয়ে মোর মর'’ণ ভালো! তিনি আরও প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন মুই মর'’লে মোর অবুঝ ছওয়া(বাচ্চা) দুই টার কি হবে ?? ছওয়া (বাচ্চা) দুইটার জন্য বাঁচপার চাং। তোমর'’া দয়া করি মোক বাঁচান। সবার কাছে অনুরোধ মোক তোমর'’া সাহায্য করো’’। মুই মর'’লে মোর মাসুম বাচ্চা দুইটা যে এতিম হবে

প্রতিবেদকের দু’টি কথাঃ আমি অ’সুস্থ আয়শা ও তার ছেলের করুন আকুতি শুনে তার অ’পারেশন করানোর চে’ষ্টা করছি। আমি নিজেই দেশ বিদেশের সকল হৃদয়বান বিত্তবান মানুষের সহযোগিতা নিয়ে আয়শা বেগমের অ’পারেশনটা করাতে চাই। আয়শা বেগম প্রায় প্রতিদিন আমা’র বাড়িতে এসে খুব কান্নাকাটি করে। তাই মাসুম বাচ্চাদুটোর মাকে বাঁচাতে আসুন যে যার অবস্থান থেকে সামর'’্থমত এগিয়ে আসি। জয় হোক মানবতার, শিশুদুটো ফিরে পাক তাদের সুস্থ মাকে।

আয়শার পাশে দাড়াতে তার ব্যাক্তিগত হিসাব নং- ২০৫০৭৭৭০২৮৩৪৪৮৯০৭, হিসাবের নাম- আয়শা বেগম, ব্যাংকের নাম- ইসলামী ব্যাংক, (এজেন্ট ব্যাংকিং) কুড়িগ্রামআরও তথ্য ও ভিডিও কলে আয়শার সাথে কথা বলতে আমা’দের স্টাফ রিপোর্টার প্রভাষক , ফয়সাল শামীম-০১৭১৩২০০০৯১।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*