কোনো দেশেই বাক-স্বাধীনতায় পরম বলতে কিছু নেই: জয়

বিশ্বের কোনো দেশেই বাক-স্বাধীনতায় পরম বা অসীম বলতে কিছু নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বি'ষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। দেশের ডিজিটাল নিরাপ'ত্তা আইন ইউরোপের অন্যান্য দেশের বিদ্যমান আইনের অনুকরণেই করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, ‘কারও ক্ষ'তি করার অধিকার আপনার নেই। বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া এক পোস্টে জয় এসব কথা বলেন। বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপ'ত্তা আইনের সমালোচনা বন্ধ করার পরামর'্শ দিয়েছেন তিনি।সজীব ওয়াজেদ জয় লিখেছেন, ফ্রান্সে অনলাইনে এক পোস্টের মাধ্যমে আইন ল'ঙ্ঘনের অ'ভিযোগে প্রধান সারির এক রাজনৈতিক নেতাকে বিচারের সম্মুখীন করা হয়েছে।

আমর'া ফ্রান্স ও জার্মানির মতো (যেখানে হেট স্পিচ, হলোকাস্ট ডিনায়েল নি'ষি'দ্ধ) ইউরোপীয় দেশের আদলে আমা'দের ডিজিটাল নিরাপ'ত্তা আইন তৈরি করেছি। তিনি বলেন, যারা আমা'দের ডিজিটাল নিরাপ'ত্তা আইন নিয়ে অ'ভিযোগ করে আসছেন, তাদের উচিত পশ্চিমা প্রভুদের কাছে কান্নাকাটি বন্ধ করা।

কারণ সেই বেশির ভাগ পশ্চিমা প্রভুর দেশে একই ধরনের আইন রয়েছে। পোস্টে তিনি বিবিসির একটি প্রতিবেদনের লিংক শেয়ার করেন। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জিহাদি গ্রুপ ইসলামিক স্টেটের হ’ত্যাযজ্ঞের ছবি পোস্ট করায় সম্প্রতি ফ্রান্সের কট্টর ডানপন্থি নেতা মা'রিন লু পেনকে বিচারের সম্মুখীন করা হয়েছে।

হেট স্পিচ সংক্রা'ন্ত আইন ভাঙার অ'ভিযোগ আনা হয়েছে তার বিরু'দ্ধে। যদিও আ'দালতে উপস্থিত হয়ে বিচার প্রক্রিয়াকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে সমালোচনা করেছেন তিনি।বিবিসির প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়, ২০২২ সালে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লু পেনকে ডানপন্থি দল দ্য ন্যাশনাল র‌্যালির একজন সম্ভাবনাময় প্রার্থী ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিবেচনা করা হচ্ছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*