ধানের শীষের পিরিত থাকলে ভোট কেন্দ্রে আসার প্রয়োজন নেই, না হলে আসার দরকার নেই’

রাত পোহালেই অনুষ্ঠিত হবে ঠাকুরগাঁও পৌর নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে শেষ নেই উদ্বেগ উৎকণ্ঠার। এ নির্বাচনে প্রার্থী দিয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। এর মধ্যেই বিএনপির কর্মী-সমর'’্থকদের বিভিন্নভাবে

হু’মকি দেয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে দরকার দলীয় নেতা-কর্মীদের বিরু’'দ্ধে। তবে তৃণমূলের বিভিন্ন নেতা-কর্মীর সাথে এবার যোগ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম।

সম্প্রতি ঠাকুরগাঁও পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ডে নৌকার এক প্রচারণা সভায় মাহমুদা বেগম বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘যাদের মনে ধানের শীষের পিরিত আছে তারা ১৩ তারিখে ঠাকুরগাঁও ছেড়ে চলে যাব'’েন।

১৩ তারিখ সন্ধ্যার পরে তাদের ঠাকুরগাঁওয়ে দেখতে চাই না। তাদের ভোট কেন্দ্রে আসার কোনো প্রয়োজন নেই। ভোট কেন্দ্রে তারাই যাব'’ে, যারা নৌকা, নৌকা আর নৌকা।’তবে সরকার দলীয় এ নেত্রীর হু’মকিকে উপেক্ষা করে ভোটের দিন ভোট দেয়া শেষে কেন্দ্রের বাইরে অবস্থান নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে ধানের শীষের নেতা-কর্মীরা।

১৪ ফেব্রুয়ারি ঠাকুরগাঁও পৌর নির্বাচন। এ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী ও মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আঞ্জুমান আরা বন্যার পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম নেতৃত্বে মহিলা আওয়ামী লীগের একটি দল ঠাকুরগাঁও অবস্থান করছেন। বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণায় অংশ নিয়ে তারা প্রকাশ্যে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের হু’মকি দিচ্ছেন।

অ’পর এক সভায় মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম বলেন, ‘ঠাকুরগাঁওয়ের রাস্তায় কাল থেকে কোনো ধানের শীষের পোস্টার আমর'’া দেখেতে চাই না। ধান বলে কোনো কথা নেই। আছে শুধু নৌকা আর নৌকা। যদি ধান থাকে তাহলে ধরে নেব ঠাকুরগাঁওয়ে কোনো আওয়ামী লীগ নেই।’

এ ব্যাপারে ধানের শীষের প্রার্থী শরিফুল ইসলাম শরিফ জানান, ‘আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রকাশ্যে এমন হু’মকিতে সাধারণ ভোটাররা আত’'ঙ্কে রয়েছে। তারা কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে আগ্রহী। কিন্তু তাদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাধা দেবে আওয়ামী লীগ। কিন্তু আমর'’া ভোটারদের বলতে চাই, আপনারা নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিন। আমর'’া আপনাদের পাশে আছি। আমর'’া কেউ ঠাকুরগাঁও ছেড়ে যাইনি যাব'’ো না।’

তবে এ বি’ষয়ে আওয়ামী লীগ নেত্রী মাহমুদা বেগমের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। সূত্র: নয়াদিগন্ত

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*