পার্লার কর্মীকে দিয়ে দে’হব্যবসা করানো সেই কাউন্সিলর গ্রে'ফতার

গাজীপুরে এক বিউটি পার্লার কর্মীকে (১৬) বাসায় আট'কে রেখে জোরপূর্বক দে'হব্যবসা করানোর অ'ভিযোগে গাসিকের আলোচিত নারী কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীকে গ্রে'ফতার করেছে র‌্যাব'-১।

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১) রাতে তাকে রাজধানীর দক্ষিণখান এলাকার একটি বাসা থেকে গ্রে'ফতার করা হয়। র‌্যাব'-১’র পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন গ্রে'ফতারের বি'ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আব্দুল্লাহ আল-মামুন জানান, গো'পন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার রাত ৯টার দিকে রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান এলাকার একটি বাসায় অ'ভিযান চালিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর (১৬, ১৭ ও ১৮নং ওয়ার্ড) রোকসানা আহমেদ রোজীকে গ্রে'ফতার করা হয়।

বাসায় আট'কে রেখে বিউটি পার্লার কর্মীকে দিয়ে জোরপূর্বক দে'হব্যবসা করানোর অ'ভিযোগে কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজী ও বাড়ির কেয়ারটেকার নুরুল হকসহ অজ্ঞাত আরও ২-৩ জনের বিরু'দ্ধে গত ম'ঙ্গলবার জিএমপি’র বাসন থানায় মা'মলা দায়ের করেন ওই ভুক্তোভোগী।

ওইদিনই বাসন থানা পুলিশ নুরুল হককে গ্রে'ফতার করলেও ঘটনার পর থেকে কাউন্সিলর রোজী পলাতক ছিলেন। প্রস'ঙ্গত, উল্লেখ্য, কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীর মালিকানাধীন চান্দনা চৌরাস্তার রহমান শপিং মলের আনন্দ বিউটি পার্লারে প্রায় চার মাস আগে চাকরি নেয় ওই কিশোরী (১৬)।

তার বাড়ি নেত্রকোনা জে'লার কলমাকান্দা থানাধীন বড়য়াকোনা এলাকায়। পার্লারে চাকরির পাশাপাশি তাকে দিয়ে গ্রে'ট ওয়াল সিটি এলাকায় রোজীর ভাড়া বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতে বাধ্য করা হয়। এরপর ওই কিশোরীকে বাসায় আট'কে রেখে বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক নুরুল হকের সহযোগিতায় প্রায় দু’মাস যাব'ৎ বিভিন্ন সময়ে দে'হব্যবসায় বাধ্য করেন কাউন্সিলর রোজী।

এক পর্যায়ে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি কৌশলে বাসা থেকে পালিয়ে যায় ভিকটিম। এ ঘটনায় জিএমপি’র বাসন থানায় মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে জবরদ'স্তি করে সেবা প্রদান ও যৌ'নবৃত্তিতে বাধ্য করার অ'ভিযোগে কাউন্সিলর রোজী ও কেয়ারটেকার নুরুল হকসহ অজ্ঞাত আরও ২-৩ জনের বিরু'দ্ধে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি মা'মলা করে ওই কিশোরী। পরে তাৎক্ষণিক বাসন থানা পুলিশ নুরুল হককে গ্রে'ফতার করলেও পলাতক ছিলেন কাউন্সিলর।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*