পুলিশের কাছে থেকে কেড়ে নিয়ে ছিন'তাইকারীকে গণপি’টুনি!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের হালদার পাড়ায় পাঁচতলা ভবনের ওপরে এসে মনিরুজ্জামান নামে ব্যবসায়ীকে ছু'রিকাঘা'ত করার ঘটনায় এক ছিন'তাইকারীকে গণপি’টুনি দিয়েছে উত্তেজিত এলাকাবাসী। রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আ'হত ব্যবসায়ী ও ছিন'তাইকারীকে উ'দ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় চিকিৎসাধীন অবস্থায় পুলিশি হেফাজত থেকে কেড়ে নিয়ে উত্তেজিত জনতা আবারও ছিন'তাইকারীরকে গণপি’টুনি দেয়। এ ঘটনায় পুলিশ হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে ৩ জনকে আট'ক করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, রোববার রাত ১২টার দিকে শহরের হালদার পাড়ায় পাঁচতলা একটি ভবনে অ'স্ত্রসহ প্রবেশ করে বাবু মিয়া নামে এক ছিন'তাইকারী। পরে ওই ভবনের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামানকে ছু'রিকাঘা'ত করে। এতে ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান গু'রুতর আ'হত হন। এ সময় বাড়ির বাসিন্দারা চিৎকার শুরু করলে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ওই ছিন'তাইকারীকে ধাওয়া করে ধরে ফেলে। পরে স্থানীয়রা ছিন'তাইকারীকে সেখানে গণপি’টুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোর্পদ করে।

পরে পুলিশ আ'হত ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান ও ছিন'তাইকারী বাবু মিয়াকে চিকিৎসার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এসময় উত্তেজিত জনতা আবারও জড়ো হয়ে পুলিশের হেফাজত থেকে কেড়ে নিয়ে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ভেতরে দ্বিতীয় দফায় মা'রপিট করে। এ ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তিন যুবককে আট'ক করা হয়েছে।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মো. আরিফুজ্জামান জানান, আ'হত ব্যবসায়ীর অবস্থা সংকটাপন্ন। তার শ্বা'সনালীতে ধা'রালো অ'স্ত্রের আঘা'ত রয়েছে। তাকে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্যে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। ছিন'তাইকারীর মাথায়ও আঘা'তের চিহ্ন রয়েছে। তবে তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রা'প্ত কর্মক'র্তা আব্দুর রহিম জানান, আ'হত ছিন'তাকারীকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। গণধো'লাইয়ের ঘটনায় ৩ জনকে আট'ক হয়েছে। সোমবার দুপুরে আট'ককৃতদের আ'দালতে পাঠানো হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*