বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে যা বললেন মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন!

যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সহিদুল ইসলামের পরিচয়পত্র দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রহণ করেছেন। এসময় বাংলাদেশের স'ঙ্গে আরও সুগভীর সম্পর্কের আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট। ওয়াশিংটন ডিসির বাংলাদেশ দূতাবাস এক সংবাদ বিজ্ঞ'প্ত িতে এ তথ্য জানিয়েছে।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের আনুষ্ঠানিক গ্রহণপত্রে স্বাক্ষর করেন। সেখানে তিনি রাষ্ট্রদূতকে যুক্তরাষ্ট্রে স্বাগত জানান। এতে বাংলাদেশের স'ঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে আরও সুগভীর করতে একযোগে কাজ করার বি'ষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

প্রথম স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা!

গেল ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করে আবারও আলোচনায় আসেন নাসির হোসেন। মিস্টার ফিনিশার হিসেবে খ্যাত নাসির হোসেনের ফেসবুকে প্রবেশ করলেই নিজের বিয়ের ছবি ও ভিডিওগু'লো দেখা যাচ্ছে। নাসিরের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, স্ত্রী সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু হিসেবে কাজ করেন তামিমা। গেল বছর ইন্সটাগ্রামে তার ছবি পোস্ট করেছিলেন নাসির।

কিছুক্ষণের মধ্যে আবার ছবি মুছেও দেন তিনি। তখনই গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন বিয়ে করতে চলেছেন তিনি। সব ঠিকঠাক চলছিল, কিন্তু শনিবার ফেসবুকে একটি পোস্ট ভাইরালের পর সামনে চলে এসেছে নানা প্রশ্ন।

দুপুরে রাইসা ইসলাম বাবুনি নামক এক ফেসবুক ব্যবহারকারী কয়েকটি স্ক্রিন শট ও একটি ভয়েস কলের রেকর্ড পোস্ট করেন। যেখানে নিজেকে তামিমা'র স্বামী দাবি করছেন রাকিব নামক এক ব্যক্তি। আরও দাবি করা হয় তাদের ঘরে রয়েছে একটি মেয়ে সন্তানও।

মুহূর্তের মধ্যে ওই পোস্টটি ভাইরাল হয়ে যায়। রাকিবের দাবি, ২০১১ সালে রাকিবের স'ঙ্গে তামিমা'র বিয়ে হয়। তালাক না দিয়ে নতুন বিয়ে করেছেন তামিমা। এখনও তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক রয়েছে। তাই তামিমা'র বিরু'দ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করেছেন তিনি। পোস্টে অডিও কলে নাসিরের পরিচয় দিয়ে রাকিবকে ফোন করা হয়। সেখানে জানতে চাওয়া হয় কেনো জিডি করেছেন তিনি। জবাবে রাকিব পাল্টা প্রশ্ন করা হয়, কেনো বিয়ে করেছেন তিনি।

জবাবে বলা হয় স্বামী ও সন্তান থাকার বি'ষয়টি জেনেই বিয়ের সি'দ্ধান্ত নেয়া হয়। বি'ষয়টি নিয়ে একাধিবার নাসিরের স'ঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চালানো হলে তার ব্যবহৃত দুটি মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। নাসিরের বড় ভাই নাসিম হোসেন জানিয়েছেন, বি'ষয়টি নিয়ে মন্তব্য করতে রাজি না। তিনি বলেন, আপাতত কিছু বলতে চাচ্ছি না। ‘অ’পেক্ষা করুন, নাসির নিজেই সব স্পষ্ট করবেন।’ সূত্র : আরটিভি নিউজ

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*