বি'স্ফো'রিত হাইড্রোজেন বো'মা থেকে নতুন ধাতুর সন্ধান

আইস্টেনিয়াম’ নামের নতুন এক ধাতুর খোঁজ পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। পদার্থবিজ্ঞানী অ্যালবার্ট আইনস্টাইনের নাম অনুযায়ী এ ধাতুর নামকরণ করা হয়েছে।

ভারতের বর্কলে ল্যাব'রেটরিতে গবেষণা করে রে'ডিওঅ্যাক্টিভ এই ধাতুটির বি'ষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন গবেষকরা।

১৯৫২ সালের ১ নভেম্বর প্রথম হাইড্রোজেন বো'মা বি'স্ফো'রণ হয়েছিল। প্রশান্ত মহাসাগরের তীরে বি'স্ফো'রিত এ বো'মা'র অ'ভিঘা'ত থেকে যে ধ্বং'সাবশেষ হয়েছিল তাতে ‘আইস্টেনিয়াম’ পাওয়া গিয়েছিল।

জানা গেছে, এতে এত সক্রিয় উপাদান ছিল যে সেটা নিয়ে খুব বেশি কাজ করছিল। ধাতু প্রচণ্ড রে'ডিওঅ্যাকটিভ ছিল। যার প্রয়োগ করা যাচ্ছিল না। এর থেকে বিকিরণ হয়। যা আশপাশের জন্য খুবই ক্ষ'তিকর।

র্নাল স্টাডি থেকে জানা যায়, পঞ্চাশের দশকে ছোট দ্বীপ এলুগেলাবে হাইড্রোজেন বো'মা বি'স্ফো'রণ হয়েছিল। নতুন এ ধাতু নিয়ে যে বিজ্ঞানীরা কাজ করেছেন, তাদের জীবনহানীর সম্ভবনাও থাকতো।

এরপর গামা কিরণ বিকিরণ করছিল। যার থেকে জীবনহানীর ভ'য় থাকতো। এই বো'মায় যে ক্ষ'তি হয়েছিল যা নাগাসাকির পরমাণু বি'স্ফো'রণের থেকে ৫০০ গু'ণ জোরালো হয়েছিল।

আইস্টেনিয়ামের রং অনেকটা রূপার মতো। পাশাপাশি অন্ধকার হলে তাতে নীল রঙ দেখা যায়। আর খুবই নরম এই ধাতু। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, রে'ডিওঅ্যাক্টিভ ধাতু হওয়ায় রাসায়নিকভাবে এই ধাতুর প্রয়োগ হওয়া সম্ভব।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*