মাদ্রাসা ছাত্ররা আবেগের বশবর্তী হয়ে আন্দোলন করেছে: মামুনুল হক

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ও হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের চট্টগ্রাম সফর প্রতিহতের ঘোষণার বিরুদ্ধে গত শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) জুমার নামাজের পর রাজধানীর বায়তুল মোকাররম থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা। এসময় ২৩ জন তৌহিদী জনতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি করেছিলেন আল্লামা মামুনুল হক।

এদিকে আল্লামা মামুনুল হক মঙ্গলবার (০১ ডিসেম্বর) বিকালে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে শিক্ষার্থীদের না জানিয়ে আন্দোলন করার কথা জানিয়েছেন। ছাত্রদের এই আন্দোলনকে ভুল বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। আল্লামা মামুনুল হকের স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে দেওয়া হল-

‘‘গত ২৭ শে নভেম্বরের মিছিলটি ছিল সম্পূর্ণ স্বতস্ফূর্ত। বাদ জুমা মিছিল হলেও আমি খবর পাই বিকাল ৩টার দিকে। পরে যতটুকু খোঁজ-খবর পেয়েছি, তাতে বুঝতে পারলাম, আলেম-ওলামাদের বিরুদ্ধে বিষোদগার ইস্যুতে শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের উলেখযোগ্য কোনো তৎপরতা চোখে না পড়ায় তরুণ ও ছাত্ররা ফেইসবুকে পারস্পরিক যোগাযোগের মাধ্যমে বিক্ষোভের কর্মসূচী গ্রহণ করেছে।

আবেগী তরুণদের এই নেতৃত্বহীন বিক্ষোভ শেষ পর্যন্ত পুলিশী এ্যাকশনের মুখে পড়ে। লাঠিচার্জের পর বেশ কিছু মিছিলকারীকে আটক করে পুলিশ। বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর মুহুর্তকাল বিলম্ব না করে আমাদের দায়িত্বশীলগণ তাদের সার্বিক সহযোগিতায় এগিয়ে যায়। একদিকে প্রশাসনের মাধ্যমে মুক্ত করার চেষ্টা করে। অপরদিকে তাদের প্রয়োজনীয় উপকরণ সরবরাহ থেকে শুরু করে আইনী প্রক্রিয়া পরিচালনার যাবতীয় ব্যবস্থা করে।

আমাদের সাথে কোনো রকম যোগাযোগ, এমন কি আকারে ইঙ্গীতেও কিছু না জানিয়ে তারা এই কর্মসূচী পালন করে। এত বড় একটি বিক্ষোভ মিছিল কোনো দায়িত্বশীল ছাড়া করা হল। এখানে আরো বড় কোনো দুর্ঘটনাও ঘটতে পারত। আবেগী তরুণরা অনেক সময়ই এমন মনে করে যে, দায়িত্বশীলদের কারণেই আন্দোলন করা যায় না। আর সে কারণে তাদের অজান্তে কর্মসূচী পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। এটি কত বড় আত্মঘাতি চিন্তা, এই ঘটনা তার একটি ক্ষুদ্র প্রমাণ।

সে যাই হোক, তরুণরা আবেগের বশবর্তি হয়ে ভুল করলেও আমরা আল্লাহর মেহেরবানীতে তাদের দায়িত্ব নিতে ভুল করিনি। আমাদের সামর্থের আলোকে আমরা তাদেরকে দ্রূত মুক্ত করার ও তাদের যাবতীয় প্রয়োজন পুরণের সব রকম উদ্যোগ নিয়েছি। এ জন্য বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিসের কেন্দ্রীয় সমাজকল্যাণ বিভাগের সম্পাদক মাওলানা শরীফ হুসাইনের নেতৃত্বে একটি টিম সার্বক্ষনিক মেহনত চালিয়ে যাচ্ছে। সবার আন্তরিক সহযোগিতা ও নেক দোয়া কামনা করি। আল্লাহই আমাদের সর্বেত্তম সাহায্যকারী’’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*