মালয়েশিয়ায় বসবাসরত বৈধ ও অবৈ'ধ সকল প্রবাসী পাবেন ফ্রি সুযোগ

মালয়েশিয়ায় বসবাসরত বৈধ ও অবৈ'ধ সকল প্রবাসী বাংলাদেশী সহ সর্বস্তরের অ'ভিবাসী কর্মীদের বিনামূল্যে কো”ভি’ট-১’৯ ভ্যা’কসি’ন দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। মালয়েশিয়া নাগরিকদের যখন যে প্রক্রিয়ায় এই ভ্যা’ক’সি’ন দেওয়া হবে সকল বিদেশি অ'ভিবাসীদেরও একসাথেই এই টি’কা দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে তারা অগ্রাধিকার পাবে। আমর'া যদি সব বিদেশিদের ক”রো’না ভাই’রা’সের টিকা না দেই তাহলে এই ক”রে’না ম’হা'মা”রী দ’মন করা সম্ভব হবে না। কারন তাদের মধ্যে সং’ক্র”মন এর প্রাদূ’র্ভাব দেখা গেছে। তাছাড়া ডি’টে’নশন ক্যাম্পে সংশ্লিষ্ট যারা আছেন তাদের কে ও টি”কার আওতায় আনা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ আ'দাম বাবা স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, এলক্ষ্যে সরকার কর্ম পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করছে এবং ইতিমধ্যে পেনাং প্রদেশে ১০০ টি ক্লি”নি’ক প্রস্তুত করা হচ্ছে। এই বি'ষয়টি দেশটির মন্ত্রীসভার এক বিশেষ বৈঠকে সি'দ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অ’বৈধ অ’ভি’বাসীদের ও টিকা দেওয়া হবে।

মালয়েশিয়ার সরকার মা'র্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজারের কো”ভি’ট- ১”৯ ভ্যা”কসি’ন চু’ক্তি অনুযায়ী ক্রয় সম্পন্ন করেছে। আশা করা যাচ্ছে চলতি ফেব্রুয়ারী মাসের শেষ স'প্ত াহে এই টি”কার প্রথম চালান দেশে এসে পৌছাবে। তখন যত দ্রুত সম্ভব এই ভ্যা’কসি’ন গ’নহা’রে দেওয়ার কার্য’ক্র’ম শুরু করা হবে। এবং এই টিকা কার্যক্রমে শরনার্থী রো’হি”'ঙ্গারা ও বাদ যাব'ে না।

মালয়েশিয়ার বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী বি'ষয়ক মন্ত্রী খয়েরি জামালউদ্দিন আজ পৃথক বিবৃতিতে বলেছেন যে, জাতীয় কো”ভি’ড -‘১’৯ টিকা প্রদান কার্যক্রমে আ’ওতাভু’ক্ত করা হয়েছে যেমন, বিদেশীদের মধ্যে কূটনীতিক, প্রবাসী, শিক্ষার্থী, বিদেশী স্বামী ও শিশু, বিদেশী সব সেক্টরের কর্মী ও শ্রমিক , ইউএনএইচসিআর (শরনার্থী) কার্ডধারীরা।

মালয়েশিয়ায় ক’রো”না মো’কাবি’লায় চলছে জরুরি অবস্থা ও ল”কডা’উন। গত বছরের চেয়ে এবার তৃতীয় ঢেউয়ে ক”রো’নার আ”ক্র’ম’ণ ছিল ভ’য়াব’হ। দেশটিতে বৈ’ধ ও অ’বৈধ মিলিয়ে ধ’রা’না’ করা হয় প্রায় ১২ লাখেরও বেশি বাংলাদেশী রয়েছেন। এই ম”হা'মা”রীর কারণে দেশে যারা ছুটিতে আছেন তারা মালয়েশিয়ায় ফিরতে পারছেন না এবং যারা মালয়েশিয়ায় আছেন তারাও ছুটিতে দেশে যেতে পারছেন না। বাংলাদেশে কো”ভি’ড-১”৯ ভ্যাকসিন প্রদান চলমান থাকলেও মালয়েশিয়ায় এখনো শুরু হয়নি। আশা করা যাচ্ছে শ্রীঘ্রই এ কার্যক্রম শুরু হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*