রাজশাহীতে ভাড়া বাড়ল অটোরিকশার

রাজশাহীতে অটোরিকশার ভাড়া বৃ'দ্ধি করা হয়েছে। ম'ঙ্গলবার থেকে এ ভাড়া বেড়েছে। এর আগে ভাড়া বৃ'দ্ধির দাবিতে ধ'র্মঘট পালন করেছিলেন অটোরিকশা চালকরা। ভাড়া বৃ'দ্ধির বি'ষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ শরিফুল ইসলাম বাবু। তিনি বলেন, গত ৭ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের ঘোষণা অনুযায়ী রাজশাহী মহানগরীতে চলাচলকারী অটোরিকশার ভাড়া পুনঃনির্ধারণ করেছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন।

এটি ম'ঙ্গলবার থেকে কার্যকর হয়েছে। তিনি আরও বলেন, অটোরিকশা মালিক/চালকদের রাজশাহী সিটি করপোরেশনের রাজস্ব বিভাগ 'হতে যথাযথ ক'র্তৃপক্ষ স্বাক্ষরিত ভাড়ার তালিকা সংগ্রহ করে অটোরিকশাতে প্রদর্শন করতে হবে। রুট ভেদে ১ থেকে সর্বোচ্চ ২ টাকা ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। সর্বনিম্ন ভাড়া ৫ টাকা পূর্বের মতো বহাল থাকবে।

৭ টাকার ভাড়া ৮ টাকা, ১০ টাকার ভাড়া ১২ টাকা, ১৫ টাকার ভাড়া ১৭ টাকা করা হয়েছে। রাজশাহীতে অটোরিকশার লাইসেন্স দিয়ে থাকে সিটি করপোরেশন। রাজশাহী মহানগর ইজিবাইক মালিক শ্রমিক সমবায় সমিতি সম্মেলন করে ১ জানুয়ারি থেকে ভাড়া বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। সেদিন জানানো হয়, এখন শহরে দুই রঙের অটোরিকশা দুই শিফটে চলাচল করে।

অর্ধেক সময় অটোরিকশা চালানোর কারণে চালকদের আয় কমেছে। তাই ভাড়া বাড়াতে হচ্ছে। সে অনুযায়ী বছরের প্রথম দিন থেকে প্রতিটি রুটে আগের ভাড়ার স'ঙ্গে বাড়তি তিন টাকা আ'দায় শুরু করেন অটোরিকশার চালকরা। কিন্তু সিটি করপোরেশনের অনুমোদন ছাড়াই এই ভাড়া আ'দায় নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। গত ৭ জানুয়ারি বি'ষয়টি নিয়ে সিটি মেয়র ইজিবাইক মালিক শ্রমিক সমবায় সমিতির নেতাদের স'ঙ্গে বসেন।

তিনি ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত বর্ধিত ভাড়া স্থগিত রাখার সি'দ্ধান্ত দেন। ৩১ জানুয়ারি পার হলেও এ নিয়ে নতুন সি'দ্ধান্ত না আসায় চালকরা ৭ ফেব্রুয়ারি বিক্ষো'ভ শুরু করেন নগর ভবনের সামনে। এসময় সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ঘোষণা দেন ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যেই তিনি অটোরিকশার ভাড়া বাড়িয়ে পুনঃনির্ধারণ করে ঘোষণা দেবেন। চালকরা মেয়রের এ কথা মেনে নেন। এরপর সিটি করপোরেশন ক'র্তৃপক্ষ ভাড়া বাড়ানোর সি'দ্ধান্ত নেয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*