ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানালেন বিএনপিদলীয় প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ। শনিবার (১৭ অক্টোবর) ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে বিকেল চারটার দিকে তিনি এ দাবি জানান।

সালাহউদ্দিন বলেন, ‘এখানে ভোটারবিহীন নির্বাচন হচ্ছে। আমাদের পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া হচ্ছে। এটা প্রহসনের নির্বাচন। তারপরও নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত দেখতে চাই। দেশবাসীকে দেখাতে চাই, এই কমিশন প্রহসনের নির্বাচন করছে।’

সালাহউদ্দিন আরও বলেন, ‘সরকার প্রথম থেকেই যেকোনো নির্বাচনে কারচুপির চেষ্টায় লিপ্ত ছিল। এখনও তাই করছে। এই সরকার ও নির্বাচন কমিশন কারচুপি ছাড়া কিছুই উপহার দিতে পারেনি।’

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে, এখান থেকেই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের পতনের আন্দোলন শুরু করা হবে।

এর আগে, বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের পোলিং এজেন্টকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেন বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিন।

তিনি দাবি করেন ‘১৪ ওয়ার্ডের অধিকাংশ ভোটকেন্দ্র থেকে ধানের শীষের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। আমি কেন্দ্র পরিদর্শন করে আমাদের কোনও এজেন্ট পাইনি।’

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কাজী মনিরুল ইসলাম মনু। আর জাতীয় পার্টির প্রার্থী মীর আবদুস সবুর আসুদ, গণফ্রন্টের এইচ এম ইব্রাহিম ভূঁইয়া, বাংলাদেশ কংগ্রেসের আনছার রহমান শিকদার ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আরিফুর রহমান।

উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লা গত ৬ মে মারা যাওয়ায় ঢাকা-৫ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here