শব্দটা ছোট হলেও অতিশয় দুর্বোধ্য, এই কথাটি নিশ্চয়ই শুনে থাকবেন আপনারা, আমাদের সমাজে স্ত্রী হলো একটা পুরু’ষের বহু আকাঙ্খিত মানুষ,

অনেক চেষ্টা করে আজকাল সিঙ্গেল ছেলেরা একটা গার্লফ্রেন্ড জোগাড় করে থাকে তাকে নিয়ে ঘর বাঁ’ধার স্বপ্ন দেখে, ভবি’ষ্যতে সে তার স্ত্রী হতে পারে আবার না হতে পারে এইটা না প্রণ এর মাধ্যমেই একজন স্ত্রী একজন পুরু’ষের কাছে

বহু আশাপ্রদ জিনিস প্রত্যেক পুরু’ষই চায় তার স্ত্রী’কে খুব ভালো হবে রাখবে যত্নে রাখবে, স্ত্রী সম্প’র্কে আমাদের কিছু মহাপুরু’ষ আছেন যারা কিছু কথা লিখেছেন সেগুলো নিচে দেয়া হল।

১. যে স্বা’মী সকালে ঘুম থেকে উঠে স্ত্রী’কে কমপক্ষে পাঁচ মিনিট জড়িয়ে ধরে রাখে তাঁর কর্মক্ষেত্রে বি’পদের আশংকা থাকে কম। — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

২.বৌয়েরা ঘরের লক্ষ্মী হয়। এদেরকে যত বেশি ভালোবাসা দেওয়া হয়, তত বেশি সংসারে শান্তি আসে।— হুমায়ুন আহমেদ।

৩. স্ত্রী’কে যথেষ্ট পরিমাণে সময় দিন, নাহলে যথেষ্ট পরিমাণে বিশ্বাস করুন। সংসার আর যু’দ্ধক্ষেত্র মনে হবে না। — সুনীল গঙ্গপাধ্যায়।

৪. সেই পুরু’ষই কাপুরু’ষ যে স্ত্রীর কাছে প্রে’মিক হতে পারেনি।— কাজী নজরুল ইসলাম।

৫.প্রতিদিন একবার স্ত্রী’কে ” আমি তোমাকে ভালোবাসি ” বললে মাথার সব দুশ্চিন্তা দূর হয়ে যায়।— সত্যজিৎ রায়।

৬• স্ত্রী’কে সপ্তাহে একদিন ফুচকা খাওয়াতে এবং মাসে একদিন ঘুরতে নিয়ে গেলে স্বা’মীর শ’রীর স্বাস্থ্য ভালো থাকে।— সম’রেশ মজুম’দার।

৭• অন্য না’রীর সাথে পরকীয়া করার চেয়ে স্ত্রী’কে একবেলা পে’টানো ভালো। তবে পে’টানোর পরে তিনগুণ বেশি ভালোবাসা আবশ্যক। — জহির রায়হান।

৮• মন ভালো রাখতে বৌকে ফেসবুক, ফোনবুক, নোটবুক সহ সব ধরণের একাউন্টের পাসওয়ার্ড দিয়ে দিন। — মার্ক জুকারবার্গ।

৯• মেয়েদের মনে ভালোবাসা এবং অভিমান দুটোই থাকে বেশি। তাই অভিমানটাকে ভালোবাসার চেয়ে বড় করে দেখা যাবে না। তাই স্বা’মীদের উচিৎ স্ত্রীর সব অভিমান ভালোবেসে ভাঙানো! — ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

১০• একটা শি’শুকে দুনিয়ার মুখ দেখাতে মা যে ক’ষ্ট সহ্য করে তা বাবা সারাজীবন ভালোবেসেও শোধ করতে পারে না। তাই প্রত্যেকটা স্বা’মীর উচিৎ তাঁর স’ন্তানের মাকে কোনোরকম ক’ষ্ট না দেয়া। — জীবনানন্দ দাশ।

১১• যু’দ্ধে বিজয়ী হলেই বিপ্লবী হওয়া যায় না৷ প্রকৃত বিপ্লবী তো সেই যে স্ত্রীর মনের একমাত্র বীরপুরু’ষ। — চে গুয়েভারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here